টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘বিজেপি করি, তাই আমার বিরুদ্ধে মামলা করতে ২০ কোটি টাকা খরচ করছে তৃণমূল’, বিস্ফোরক শুভেন্দু

বাংলাহান্ট ডেস্ক : বিস্ফোরক দাবি শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari)। গতকাল বিধানসভার বাইরে সোমবার রাজ্যের আর্থিক দুরাবস্থা এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্য সরকারকে একের পর এক আক্রমণ শানিয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা (Opposition Leader)। আর এরই মধ্যে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন তিনি। শুভেন্দু এদিন বলেন, ‘২ মে’র পরবর্তী সময়ে আমার এবং আমার ভাই সৌমেন্দু সহ কিছু নিরপরাধ লোককে আমার ঘনিষ্ঠ আখ্যা দিয়ে যে মামলা করা হয়। সেগুলির জন্য কপিল সিব্বাল, মনু সিংভি, সিদ্ধার্থ সিং এবং কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবীদের মিলিয়ে রাজ্য সরকার প্রায় ২০ কোটি টাকা দিয়েছে। বিগত ১৬ মাসে ধরে আমার বিরুদ্ধে মামলাগুলি করার জন্য এই পেমেন্ট করেছে তৃণমূল।’

এদিন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর আরও বলেন, ‘২০২১ সালের ৫ মে’র পর থেকে আমার বিরুদ্ধে ২১ টি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। সেই নথি দেখিয়ে বিরোধী দলনেতা বলেন, ‘আমার অপরাধ একটাই। ওঁর দেওয়া সমস্ত পদ ছেড়ে আমি বিজেপিতে যোগ দিয়েছি। আর পরবর্তী সময়ে নন্দীগ্রামে মমতাকে হারিয়ে দিয়েছি। গতকাল তিনি বলেছেন, প্রতিহিংসা নাকি তিনি নেন না। এর থেকে বড় উদাহরণ আর কোথাও পাবেন না।’

এমনকী ওই অভিযোগগুলির মধ্যে ত্রিপল চুরির অভিযোগও রয়েছে বলে দাবি বিরোধী দলনেতার। শুভেন্দু বলেন, ‘আইন ভাঙলে গ্রেফতার হতে হবে। আমি দুইবার গ্রেফতার হয়ে লালবাজারে গিয়েছি। বন্ড দিয়ে ফিরে এসেছি। কিন্তু এখানে ত্রিপল চুরির মামলাও পাবেন। আমি বিরোধী দলনেতা… আমাদের বাড়ির পলিটিক্যাল ট্র্যাডিশন দশকের পর দশক… সেখানে ত্রিপল চুরির অভিযোগ!’

শুভেন্দু অধিকারীর এই মন্তব্যের জবাব দেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। শুভেন্দুর বিরুদ্ধে ২১ টি মামলা প্রসঙ্গে কুণাল বলেন, ‘অনেক বেশি হওয়া উচিত ছিল। শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলে থাকতে, প্রভাব খাটিয়ে নিজেকে আড়াল করে রাখছিলেন এবং পরবর্তীকালে সিবিআই ও ইডির ভয়ে তো তিনি গিয়েছেন ওখানে। অভিযোগ যদি থাকে, মামলা হয়েছে। সে তো আদালতে বুঝবেন। বাইরে চেঁচাচ্ছেন কেন?” যদিও সরকার কত টাকা ব্যয় করেছে, সেই প্রসঙ্গে কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি তৃণমূল শিবির থেকে।

Related Articles