টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

জামিনই চাইলেন না কেষ্ট, ফের ১৪ দিনের বিচার বিভাগীয় হেফাজতে ‘বীরভূমের বেতাজ বাদশা’

বাংলা হান্ট ডেস্ক : কপাল খারাপ অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mandal)। গরু পাচার মামলায় আগামী ১৪ দিনের জন্য আবারও বিচারবিভাগীয় হেফাজত হল তাঁর। আজ শুক্রবার আসানসোল (Asansol)জেলা আদালতে তাকে তোলা হয়। তবে জানা যাচ্ছে, এদিন অনুব্রতর জামিনের আবেদন করেননি তাঁর আইনজীবী। ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আরও একবার বিচার বিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

আজ শুক্রবার যখন অনুব্রত মণ্ডলকে আদালতে তোলা হয়, তখন তাঁকে বেশ অসুস্থ মনে হচ্ছিল। দীর্ঘ কয়েক মাসের জেলবন্দি দশায় তাঁর চেহারায় অনেক পরিবর্তন হয়েছে।  এমনিতেও বীরভূমের তৃণমূল সভাপতির উচ্চ রক্তচাপ, সুগার-সহ একাধিক শারীরিক সমস্যা রয়েছে। তবে এদিন আদালতে পেশ করার আগে প্রাথমিক পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি মোটামুটি সুস্থই রয়েছে।

anubrata

এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি অনুব্রত মণ্ডলকে তোলা হয় আদালতে। সেদিন সিবিআই (CBI) দাবি করেছিল আরও বেনামি অ্যাকাউন্টের হদিশ পাওয়া গেছে। বীরভূমের কো-অপারেটিভ ব্যাংকের ১৭৭ টি বেনামি অ্যাকাউন্টের কথা জানা যায় অনেক আগেই। তারপর আরও ৫৪টি বেনামি অ্যাকাউন্টের খোঁজ পাওয়া যায়। সিবিআইয়ের আইনজীবী দাবি করেন, ওইগুলি সব বাফার অ্যাকাউন্ট। ওই অ্যাকাউন্টগুলির মাধ্যমে ঘুরপথে কোটি কোটি টাকা অনুব্রত এবং তাঁর মেয়ে সুকন্যা মণ্ডল লেনদেন করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১১ আগস্ট অনুব্রতকে গ্রেফতার করে সিবিআই। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টর (ইডি) গরু পাচারকাণ্ডে তদন্ত করছে। তদন্তের স্বার্থে অনুব্রতকে দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় ইডি। সেই অনুমতিও ইডি পেয় যায়। কিন্তু দিল্লি যাওয়ার আগে বিভিন্ন আইনি জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় অনুব্রতের দিল্লি যাওয়া আটকে যায়। অনুব্রতকে ইডি নিজেদের হেফাজতে নিলেও খুনের চেষ্টার মামলায় রাজ্য পুলিসের হাতে গ্রেফতার হন তিনি। পরে জামিন পেয়ে রামপুরহাট জেল থেকে আবার আসানসোল জেলে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে।

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker