টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

বঙ্গে প্রবল শক্তি বৃদ্ধি বিজেপির, সিপিএম কাউন্সিলর সহ বিজেপিতে যোগ দিলেন ২ হাজার কর্মী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ সিপিএমের ছত্রছায়া ত্যাগ করে বিজেপিতে (Bharatiya Janata Party) যোগ দিলেন কলকাতার ১০২ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিএম কাউন্সিলর রিঙ্কু নস্কর (rinku naskar)। দলে নবাগত সদস্যদের দলীয় পতাকা হাতে তুলে দিয়ে সাদরে আমন্ত্রণ জানালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আগেই প্রকাশ করেছিলেন বিজেপিতে যোগদানের ইচ্ছা
সূত্র মারফত জানা গিয়েছিল, কলকাতার ১০২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রিঙ্কু নস্কর মঙ্গলবারই সিপিএমের হাত ছেড়ে দিয়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। সোমবার এই সিপিএম কাউন্সিলর জানিয়েছিলেন, ‘আজকের দিনে দেখছি কেউই আর এই নীতি আদর্শ মেনে চলছে না। যদি সকলে নীতি আদর্শ নিয়েই থাকত, তাহলে কোনদিন কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধত না সিপিএম। তবে এই দল ছাড়ার বিষয়ে কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে আলোচনা করেই আমি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি’।

বিজেপিতে যোগ দিলেন প্রায় ২ হাজার সদস্য
মঙ্গলবার কাউন্সিলর রিঙ্কু নস্করের সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার যুব নেতা ধীমান কুণ্ডু এবং যাদবপুর বিধানসভা এলাকার বিভিন্ন ওর্য়াডের সিপিএমের প্রায় ২ হাজার সদস্যবৃন্দ। এবিষয়ে দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘যাদপুরের সিপিএমের কাউন্সিলর রিঙ্কু নস্কর এবং যুব নেতা ধীমান কুণ্ড সহ যে সকল সদস্যরা বিজেপিতে যোগদান করলেন, তাদের সকলকে দলে স্বাগত জানাচ্ছি। আরও অনেকে আসতে চলেছেন আমাদের দলে। সকলেই তাদের যোগ্য সম্মান পাবেন’।

বাংলার মানুষকে মুক্তি দিতে পারবে বিজেপি
বিজেপিতে যোগ দিয়ে রিঙ্কু নস্কর জানিয়েছেন, ‘সিপিএমের শিক্ষা অনুযায়ী রাজনীতিতে জনগণের কথাই শেষ। যখন যাদবপুর সহ গোটা ভারতবর্ষের মানুষ বিজেপিকে প্রাধান্য দিচ্ছেন, তাই তাদের প্রতিনিধি হিসাবে আমিও বিজেপিতে যোগ দিলাম। সিপিএমে এখন আর কেউ নীতি আদর্শ মেনে চলছে না। কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লড়ছে সিপিএম। অন্যদিকে বাংলার মানুষ তৃণমূলের শাসনে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এই পরিস্থিতিতে মানুষকে মুক্তি দিতে পারবে একমাত্র বিজেপি’।

Back to top button