টাইমলাইনভারত

লকডাউনে কর্মহীন হওয়ায় ভিডিও দেখে জাল নোট ছাপানো শুরু করে ৩ বন্ধু, ধৃত ২

Bangla Hunt Desk: হাতে স্মার্ট ফোন এবং বর্তমান সময়ে স্যোশাল মিডিয়ার দৌলতে আমরা ঘরে বসেই নানান ধরনের জিনিস তৈরি করতে সক্ষম হই। নানান ধরণের ভিডিও (Video) দেখে মানুষ প্রতিনিয়তই কত কিছু শিখতে, জানতে পারে। কখনও তা শুধুমাত্র নিজের শখের কারণে, আবার কখনও তা হয়ে দাঁড়ায় কর্মহীন মানুষের জীবিকার পথ।

সম্প্রতি করোনা মহামারির কারণে লকডাউনে (lockdown) কর্মহীন হয়ে পড়েছেন বিরাট সংখ্যক মানুষ। কেউ কেউ খুঁজে নিয়েছেন নানান ধরণের কাজ, আবার কেউ কেউ তা খুঁজে নিতেও অসমর্থ হয়েছেন। তবে এই লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়ায় স্যোশাল মিডিয়ায় ভিডিও দেখে নকল নোট (fake currency) ছাপানোর কাজ শুরু করেন ৩ বন্ধু।

মহল্লা চাঁদ কলোনির বাসিন্দা সঞ্জীব রায়, সুনীল কুমার এবং দলভীর সিং ৩ বন্ধু মিলে বিগত কয়েক দিন ধরে গোপনেই এই জাল নোট তৈরির কারবার শুরু করে। নিজেরা নকল নোট তৈরি করে, তা নিজেরাই বাজারে নিয়ে যেত। পুলিশের কাছে খবর আসায়, তল্লাশি চালাতে শুরু করে প্রশাসন।

পুলিশের কাছে খবর থাকায় ওই এলাকায় পাহারাদারি শুরু করে পুলিশ বাহিনী। যখন সঞ্জীব রায়, সুনীল কুমার নকল নোট নিয়ে বাজারের উদ্দ্যেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন, তখনই তাদের হাতে নাতে পাকরাও করে পুলিশের লোক। প্রথমে তাদের থেকে ১০০ টাকার ৯ টি নকল নোট উদ্ধার করা হয়। সেইসঙ্গে উদ্ধার হয় ২.৪০ লক্ষ টাকাও।

অভিযুক্তদের জেরা করে জানা যায়, তাদের আরও একজন সঙ্গী ছিল। তারা নিজেরাই জাল নোট ছাপিয়ে বাজারে নিয়ে যেত। তাদের কাছ থেকে আরও ১.৪৭ লক্ষ এবং ৯৩ হাজার টাকার নকল নোট উদ্ধার করা গেছে। তবে তৃতীয় অভিযুক্ত বর্তমানে পলাতক, পুলিশ খোঁজ চালাচ্ছে।

যুগ্ম পুলিশ কমিশনার কান্দরদীপ কৌর জানিয়েছেন, ওই এলাকায় পুলিশি পাহার বসানো হয়েছে। তৃতীয় অভিযুক্তের খোঁজ চলছে। অন্যদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

Back to top button