টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

কাঙাল পাকিস্তানের চিড়িয়াখানায় কুকুরের মতো অবস্থা হল সিংহের, না খেতে পেয়ে মরছে পশুরা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পাকিস্তানের (Pakistan) করাচি (Karachi) শহরের চিড়িয়াখানায় পশুরা অনাহারে মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় করাচির চিড়িয়াখানার এক সিংহের ছবি ভাইরাল হচ্ছে, যা দেখে নেটিজেনরা ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে, সিংহের অবস্থা কুকুরের মতো হয়ে গিয়েছে। নির্জীব হয়ে সিংহটিকে মাটিতে শুয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। শরীরের লোম পর্যন্ত ঝরে গিয়েছে এবং তাঁর হাড় পর্যন্ত গোনা যাবে এমন অবস্থা হয়েছে।

করাচি মেট্রোপলিটন কর্পরেশনের মুখপাত্র সিংহের মৃত্যুর খবরের সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন যে, সিংহটি টিবিতে আক্রান্ত ছিল আর বিগত ১৩ দিন ধরে সে অসুস্ত ছিল। মুখপাত্র বলেন, ‘চিকিৎসকরা সিংহটির চিকিৎসা করছিলেন ঠিকই, কিন্তু তাঁকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। বুধবার সকাল ১১টা নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয়েছে।” মুখপাত্র বলেন, সিংহটি ১৪-১৫ বছরের ছিল আর আফ্রিকার চিড়িয়াখানা থেকে সেটিকে করাচির চিড়িয়াখানায় নিয়ে আসা হয়েছিল।

মুখপাত্র এও জানান যে, সিংহের পোস্টমর্টেম করার পর জানা যায় যে সে নিমোনিয়ায় আক্রান্ত ছিল, তাঁর শ্বাসযন্ত্র কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। করাচির প্রশাসক ব্যারিস্টার মুরতাজা ওয়াহাব সিংহের মৃত্যুতে বিস্তৃত রিপোর্ট চেয়েছেন। ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে ওয়াহাব বলেছেন, সাদা সিংহ খুবই দুর্লভ প্রজাতির প্রাণী। সিংহের মৃত্যুতে যদি কোনও অবহেলার কথা প্রকাশ্যে আসে, তাহলে চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সিংহের করুণ দশার ছবি প্রকাশ্যে আসতেই নেটিজেনরা ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। সবার একটাই প্রশ্ন যে, ইমরান সরকারের কাছে সামান্য টাকাও নেই, যা দিয়ে পশুদের পেট ভরানো যাবে? উল্লেখ্য, এক দিন আগেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রকাশ্যে স্বীকার করেছেন যে, সরকারের কাছে দেশ চালানোর টাকা নেই। আর সেই কারণেই বিদেশ থেকে ঋণ নিতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button