টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

মালদায় চকলেটের লোভ দেখিয়ে ৯ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ফের একবার খবরের শিরোনামে উঠে এলো মালদহ। কয়েকদিন আগেই, মালদার ভুতনি চক এলাকায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছিল রাতে অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে বাড়ি ফেরা এক কিশোরী। যৌন হেনস্থা করা হয়েছিল তার বোনকেও। এই খবর শুনে শোকগ্রস্ত হয়ে মারা যান ওই কিশোরীর মাও। এঘটনার ঘা হয়তো এখনো শুকায়নি, তার আগেই ফের একবার শিরোনামে উঠে গেল মালদহ। এবার ন বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ৬২ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি মানিকচক থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন ওই নাবালিকার মা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে মানিকচক থানার অন্তর্গত জালালপুর গ্রামে। দলিত ওই নাবালিকার মায়ের অভিযোগ, তার ন বছরের কন্যাকে ধর্ষণ করেছেন ৬২ বছরের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক রফিকুল ইসলাম। এই নক্কারজনক ঘটনায় ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলামকে।

পুলিশ মারফত জানানো হয়, তার বিরুদ্ধে পোকসো আইনের আওতায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২০১২ সালে শিশুদের উপর যৌন হেনস্থার ঘটনা রুখতে এই আইনটি প্রণয়ন করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, আমবাগানে খেলা করার সময় চকলেটের লোভ দেখিয়ে ওই নাবালিকাকে ঘরে টেনে নিয়ে যান অবসরপ্রাপ্ত ওই শিক্ষক। আর তারপর মেয়েটির সঙ্গে পাশবিক অত্যাচার করেন তিনি। পুলিশে অভিযোগ দায়ের হলে, প্রথমে জানা যায় ফেরার হয়ে গিয়েছেন রফিকুল। পরে অবশ্য তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, ঘটনাটি দেখে ফেলেছিল মেয়েটির বড় বোন। আর সেখান থেকেই এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ন বছরের কিশোরীকে আপাতত ভর্তি করা হয়েছে মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে। আপাতত তার অবস্থা স্থিতিশীল বলেই জানা গিয়েছে পরিবার তরফে।

Related Articles

Back to top button