টাইমলাইনভাইরালভারত

আরেক সোনু সূদ, বছর বারোর ছাত্রী নিজের জমানো টাকা খরচ করে বাড়ি পাঠালেন তিন পরিযায়ী শ্রমিককে

বাংলাহান্ট ডেস্ক: লকডাউন (lockdown) চলেছে প্রায় দু মাস ধরে। ৩০ মে শেষ হয় চতুর্থ দফার লকডাউন।১লা জুন থেকে ধাপে ধাপে শুরু হয়েছে আনলকডাউন। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে পরিষেবা। এই প্রায় দু মাস ব‍্যাপী লকডাউনে বহু কঠিন পরিস্থিতির শিকার হয়েছে গোটা দেশ, বিশেষত পরিযায়ী শ্রমিকরা (migrant workers)।
রোজগারের জন‍্য ভিন রাজ‍্যে গিয়ে যারা আটকে পড়েছিলেন তারা বাধ‍্য হয়েই হেঁটে বাড়ি ফেরার রাস্তা ধরেন। কিছু মানুষ ভাগ‍্যজোরে বাস বা ট্রেনে করে ফেরার সুযোগ পান। আবার অনেকের রাস্তাতেই যাত্রা শেষ হয় ট্রেন বা গাড়ির নীচে চাপা পড়ে। কিন্তু এখনও এমন অনেক শ্রমিক আছে যারা আর্থিক পরিস্থিতির কারনে নিজেদের রাজ‍্যে যেতে পারছেন না।


এমন অবস্থায় এগিয়ে এসেছেন এক ছাত্রী। নিহারিকা দ্বিবেদী নামে উত্তর প্রদেশের গৌতম বুদ্ধ নগর নয়ডার অধিবাসী ওই ছাত্রীর বয়স মাত্র ১২। এই বয়সেই সে নিজের জমানো ৪৮ হাজার টাকা খরচ করে তিনজন পরিযায়ী শ্রমিককে ঝাড়খন্ডে নিজেদের বাড়ি ফেরার বন্দোবস্ত করে দিয়েছে। ওই তিনজনেরই বিমানের টিকিট কেটে দিয়েছে সে নিজের টাকায়।

এই প্রথম বার ওই পরিযায়ী শ্রমিকেরা বিমান যাত্রা করছেন। নিহারিকার এই উদ‍্যোগে তারা খুবই কৃতজ্ঞ। নিহারিকার কথায়, “সমাজ আমাদের এত কিছু দিয়েছে। আমাদের উচিত এই পরিস্থিতিতে তাকে কিছু ফিরিয়ে দেওয়া।”
এর আগে ঝাড়খন্ড সরকার থেকেও উদ‍্যোগ নিয়ে ভিন রাজ‍্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের বিমানে ফেরানোর ব‍্যবস্থা করা হয়। সেই সব ছবি ঝাড়খন্ডের মুখ‍্যমন্ত্রী সোশ‍্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন।
উল্লেখ‍্য, বেঙ্গালুরুর ন‍্যাশনাল ল স্কুলের একজন প্রাক্তন ছাত্রও চাঁদা তুলে ১৮০ জন পরিযায়ী শ্রমিককে বিমানে বাড়ি ফেরানোর ব‍্যবস্থা করেছিলেন। তিনি জানতে পারেন মুম্বই আইআইটির কাছে কিছু শ্রমিক আটকে পড়েছেন। তারপরেই এই পরিকল্পনা করেন তিনি। তবে সেই ছাত্র নিজের নাম প্রকাশ‍্যে আনতে চাননি।

Back to top button