টাইমলাইনভারত

আগামীকালই আধার ও রেশন কার্ড লিংক করার শেষ দিন, জেনে নিন পদ্ধতি

রেশন কার্ড (ration card), আধার কার্ডের (aadhar card) যুক্ত করার সময়সীমা বাড়িয়েছিল খাদ্যমন্ত্রক৷ যা শেষ হচ্ছে আগামীকাল অর্থাৎ ৩০ সেপ্টেম্বর। যারা এখনও রেশন কার্ডকে আধার সাথে সংযুক্ত করেননি, এখুনি আধার ও রেশন কার্ড লিংক করুন। জেনে নিন পদ্ধতি


রেশন কার্ডকে আধার সাথে যুক্ত করার পদ্ধতি ..

ভারতের অনন্য আইডেন্টিফিকেশন অথরিটি (UIDAI ওয়েবসাইট) অনুসারে, পরিবারের সকল সদস্যের রেশন কার্ডের জেরক্স এবং আধার সহ পিডিএস অর্থাৎ রেশন শেয়ারিংয়ের সাথে জমা দিতে হবে দোকান।

পরিবারের প্রধানের পাসপোর্ট ছবিও দিতে হবে। আপনার বিশদ এবং আধার নম্বর মেলানোর জন্য, পিডিএস দোকানে রেশন কার্ডধারাকে বায়োমেট্রিক মেশিন বা সেন্সরে আঙুল রাখতে বলা হতে পারে।

যার নামে রেশন কার্ড রয়েছে, যদি তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টটি আধার কার্ডের সাথে যুক্ত না হয়, তবে তাকে পিডিএস শপে তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পাসবুকের ফটোকপিও জমা দিতে হবে।

রেশন তোলা ছাড়াও ব্যাঙ্কে একাউন্ট খুলতে গেলে গুরুত্বপূর্ণ নথি হিসাবে বিবেচিত হয় এই রেশন কার্ড। পাশাপাশি, ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরির ক্ষেত্রেও রেশন কার্ডের প্রয়োজন হয়।

আপনার গণতান্ত্রিক অধিকার ভোটদান। জানেন কি ভোটার আইডি তৈরি করতে গেলে আপনার যে শর্তগুলি পূরন করতে হবে তার মধ্যে অন্যতম রেশন কার্ড। প্যান ও আধার কার্ড তৈরি ও আধার আপডেট করতে গেলেও রেশন কার্ডের প্রয়োজন হয়।

সব মিলিয়ে আপনার ঠিকানা, বয়স সহ একাধিক তথ্য থাকে এই রেশন কার্ডে, যা সরকারি প্রায় সকল ক্ষেত্রেই নথি হিসাবে দাখিল করা যায়। তাই রেশন কার্ডকে অবহেলা করবেন না। আপনার যদি রেশন কার্ড না থাকে বা তবে যত শীঘ্রই সম্ভব করে নিন এই কার্ড। পাশাপাশি, আপনার রেশন কার্ড আপডেট করেও রাখুন। যে কোনো সময়ে প্রয়োজন হতে পারে এই গুরুত্বপূর্ণ নথি।

রেশন কার্ড তৈরির জন্য রাজ্যের খাদ্য বিভাগের পোর্টালে গিয়ে একটি ফর্ম ডাউনলোড করে সেটি ফিল আপ করুন। সমস্ত নথি সহ সেই ফিল আপ হওয়া ফর্ম নিকটবর্তী রেশন ডিলার বা ফুড সাপ্লাই অফিসে জমা করুন ৷ নথি যাচাই হওয়ার এক মাসের মধ্যেই পাবেন রেশন কার্ড।

Back to top button