টাইমলাইনভারত

১৭০ কোম্পানিতে আবেদন করেও চাকরি পায়নি, বাধ্য হয়ে ঝাড়ুদারের কাজ করে এই যুবক এখন কোটি টাকার কোম্পানির মালিক

কথায় আছে, যিনি লড়াই করতে ভয় পান না, তিনি একদিন অবশ্যই সাফল্য পান। উত্তরপ্রদেশের (uttarpradesh) আলিগড়ের বাসিন্দা এক যুবকের কাহিনি ঠিক তেমনই। যে ব্যক্তি ৪ মাসে ১৭০ সংস্থায় জায়গায় চাকরির জন্য আবেদন করেও চাকরি পাননি, অবিশেষে বিমানবন্দরের সাফাই কর্মী হিসাবে যোগ দিয়েছিলেন। কিছু অতিরিক্ত আয়ের জন্য, সংবাদপত্র বিতরণও করতেন। আজ তাঁর ডিজিটাল সলিউশনস সংস্থা আজ আকাশ ছুঁয়েছে ।

আমির কুতুব এর জন্ম এক মধ্যবিত্ত পরিবারে। দ্বাদশ শ্রেণির পরে আমির আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি হন। ২০১১ সালে তিনি ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন এবং সম্পাদক নির্বাচিত হন। পড়াশোনা শেষ করে তিনি দিল্লির হোন্ডা কোম্পানিতে কাজ শুরু করেন।

সেখানে কাজ করতে তার ভালো না লাগলে, আমির স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করেব এবং অস্ট্রেলিয়ায় চলে যান। অস্ট্রেলিয়াতেই আমির ৪ মাসে ১৭০ কোম্পানিতে আবেদন করে সফল না হয়ে অবশেষে ঝাড়ুদারের কাজ শুরু করেম

হঠাৎই একদিন বাসে একজন আমিরকে একটি কাজের কথস বলে। আমির এই কাজটি করে ওই সংস্থাকে প্রতি মাসে পাঁচ হাজার ডলার সাশ্রয় করে। আস্তে আস্তে তিনি কিছু ক্লায়েন্টকে আমিরের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন।

আমিরের কঠোর পরিশ্রম এর দিন শেষ হয় এবং সে তার ওয়েবসাইট ডিজাইনিং কাজ শুরু করে। আজ আমিরের সংস্থার টার্নওভার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ কোটি টাকা। তাঁর সংস্থায় ১০০ জন স্থায়ী এবং ৩০০ জন অস্থায়ী কর্মচারী এই মুহুর্তে কাজ করছেন।

 

 

Back to top button