টাইমলাইনভারত

বিতর্কের আগে দীপ সিধু কৃষক ছিল, এখন সে বিজেপির লোক! কেজরীবালের বিধায়কের ট্যুইট নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গতকাল প্রজাতন্ত্র দিবসে দেশের রাজধানী দিল্লীতে কৃষকদের উৎপাত গোটা দেশ দেখেছে। শান্তিপূর্ণ ট্রাক্টর র‍্যালির নামে গোটা দিল্লী জুড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে কৃষকরা। যদিও এই হিংসাত্মক ঘটনার পর সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে যে, হিংসা ছড়ানো কৃষকরা তাঁদের লোক না। তাঁদের র‍্যালিতে কিছু সমাজ বিরোধী মানুষ ঢুকে নিন্দনীয় কাজ করেছে। কৃষক সংগঠনের সাথে এদের কোনও যোগ নেই বলে জানিয়েছে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা।

আরেকদিকে দিল্লীর লাল কেল্লায় কৃষকদের তাণ্ডবের দৃশ্যও আমরা দেখেছি। লাল কেল্লায় বিতর্কিত ঝাণ্ডা লাগানোর ভিডিও বারবার প্রতিটি মিডিয়ায় দেখানো হয়েছে। কৃষক সংগঠনের দাবি, যারা ওখানে এই নিচ মানসিকতার আচরণ করেছে, তারা কেউই এই আন্দোলনের অংশ নন। তাদেরকে উস্কেছে পঞ্জাবি গায়ক ও অভিনেতা দীপ সিধু (Deep Sidhu)। ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়নের হরিয়ানা ইউনিটের প্রধান গুরনাম সিং চাদুনি এমনই এক চাঞ্চল্যকর দাবি জানিয়েছেন।

এবিষয়ে স্বরাজ ইন্ডিয়ার নেতা যোগেন্দ্র যাদব(Yogendra Yadav) বলেছেন, ‘কৃষক আন্দোলনের প্রথম থেকেই আমরা সকলে দীপ সিধুর বিরোধিতা করে আসছি। এমনকি লালকেল্লায় হাঙ্গামার সময়দীপ সিধু সেখানে উপস্থিত ছিলেন। ওই ঘটনার সঙ্গে যারা যুক্ত ছিলেন, তারা কিন্তু কেউই এই আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত কৃষক নন। কিন্তু কিছু করার নেই, এখন এই ঘটনার দায় আমাদেরকেই নিতে হবে। লালকেল্লার ঘটনার জন্য লজ্জায় আমাদের মাথা নিচু হয়ে যাচ্ছে’।

আরেকদিকে দীপ সিধুকে এখন বিজেপির এজেন্ট বলে চালানোর চেষ্টা চালাচ্ছে কৃষক সংগঠন এবং কৃষক আন্দোলনের সাথে যুক্ত নেতারা। দিল্লীর আম আদমি পার্টির বিধায়ক নরেশ বলিয়ানের একটি পুরনো ট্যুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে। ওই ট্যুইটটি ২৮ নভেম্বর ২০২০ তে করা হয়েছিল। ওই ট্যুইটটি পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রির ট্যুইট রিট্যুইট করে করা হয়েছিল।

ট্যুইটে AAP বিধায়ক নরেশ বলিয়ান লিখেছিলেন যে, ‘দীপ সিধু একজন পাঞ্জাবি অভিনেতা। দীপ সিধু এই আন্দোলনের সাথে যুক্ত কারণ সেও একজন কৃষকের ছেলে।” এবার দীপ সিধুর বিরুদ্ধে দিল্লীর হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগের পর আপ বিধায়ক নরেশ বলিয়ান আরও একটি ট্যুইট করে দীপ সিধুকে বিজেপির এজেন্ট বলে দাবি করেছেন।

https://twitter.com/AAPNareshBalyan/status/1332549819563294720

তিনি গতকাল একটি ট্যুইট করে লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী জির দলের পূর্ব গুরুদাসপুর লোকসভার ম্যানেজার আজ লাল কেল্লায় নিজের ধার্মিক পতাকা উত্তোলন করেছে। গণতন্ত্রে এটা খুব নিন্দনীয়। বিজেপি আন্দোলনে নিজেদের লোক ঢুকিয়ে আন্দোলনকে বদনাম করার কুচক্র চালাচ্ছে। এটা বিজেপির ষড়যন্ত্র।”

আপ বিধায়কের এই ট্যুইটে স্পষ্ট যে, এতদিন ধরে কৃষক আন্দোলনের সাথে যুক্ত দীপ সিন্ধু তাঁদের লোক ছিল। আর গতকাল তাঁর দ্বারা করা উপদ্রবের পর সে বিজেপির এজেন্ট হয়ে গেল।

Back to top button