টাইমলাইনবিনোদন

‘আমার মেয়ে অভিনেত্রী হলে তার সঙ্গেও শুতাম’, বলিউডে পা রেখেই শুনতে হয়েছিল ‘সন্তোষী মা’ অভিনেত্রীকে

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বিনোদন ইন্ডাস্ট্রি (Bollywood) মানেই যেন এক নিষিদ্ধ জগৎ। বাইরের মানু্ষদের সে জগৎ নিয়ে কৌতূহল অপরিসীম। কিন্তু সে জগতের বাসিন্দা যারা তারা কিন্তু বলেন, সেখানে টিকে থাকা খুব একটা সহজ নয়। রাস্তা খুব পিচ্ছিল, পদে পদে পা ফসকানোর সম্ভাবনা। নিজের মান সম্মান নিজেকেই রক্ষা করে চলতে হয়‌। বড় তারকা হোক বা উঠতি অভিনেত্রী, পরিচালক প্রযোজকদের লালসা ভরা দৃষ্টি থেকে কেউই রেহাই পায় না।

বলিউডের কাস্টিং কাউচ নিয়ে বহুবার সরব হতে দেখা গিয়েছে নামী অভিনেত্রীদের। ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির বয়স্থ প্রযোজকদেরও মুখোশ খুলে দিয়েছেন অনেকে। এবার সেই তালিকায় নাম লিখিয়েছেন অভিনেত্রী রতন রাজপুত (Ratan Rajput)। হিন্দি টেলিভিশন দুনিয়ার অত‍্যন্ত পরিচিত মুখ রতন। ‘আগলে জনম মোহে বিটিয়া হি কিজো’ সিরিয়ালটি করে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ওঠেন তিনি। ‘মঙ্গলময়ী সন্তোষী মা’ সিরিয়ালেও তাঁর অভিনয় প্রশংসিত হয়েছিল।


অভিনয়ের পাশাপাশি ইউটিউব চ‍্যানেলও রয়েছে রতনের। নিয়মিত ভ্লগিং ভিডিও আপলোড করেন তিনি। সেখানেই নিজের কাস্টিং কাউচ অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন রতন। সে ঘটনা অবশ‍্য অনেকদিন আগেকার। তখন সবে সবে নিজের কেরিয়ার শুরু করতে যাচ্ছিলেন রতন।

ইউটিউব ভিডিওতে অভিনেত্রী বলেন, এই ঘটনা ১৪ বছর আগেকার। তখন সদ‍্য মুম্বই এসেছেন তিনি। আর সেখানে পা রেখেই শহরটার স্বরূপ চেনা হয়ে গিয়েছিল তাঁর। এক ৬০-৬৫ বছর বয়সী লোকের পাল্লায় পড়েছিলেন রতন। তাঁর চুল, ত্বক, ফ‍্যাশন সেন্স সবকিছু নিয়ে অপমান করে ওই ব‍্যক্তি বলেছিলেন, রতনের সম্পূর্ণ মেকওভার করতে দু-আড়াই লাখ টাকা লাগবে।

কিন্তু সেই টাকা তিনি এমনি এমনি দেবেন না। তাঁকে নিজের ‘গডফাদার’ বানাতে হবে। নিজের বন্ধু বানাতে হবে। রতন বলেন, তিনি শুনে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। বাবার বয়সী কারোর সঙ্গে বন্ধুত্ব করবেন কীকরে? তিনি শুধু শ্রদ্ধাই করতে পারেন। রতনের উত্তর শুনে রেগেমেগে ওই ব‍্যক্তি বলেছিলেন, বিনা পয়সায় কোনো সাহায‍্যই তিনি করতে পারবেন না। অভিনয় জগতে ঢুকতে গেলে এসব নাটক বন্ধ করতে হবে, সাফ জানিয়েছিলেন তিনি।

এরপরে ওই বয়স্থ ব‍্যক্তি যা বলেছিলেন তা এত বছর পরেও ভুলতে পারেননি রতন। বাবার বয়সী কারোর সঙ্গে বন্ধুত্ব করা সম্ভব নয়, রতনের মুখে একথা শুনে ওঈ ব‍্যক্তি বলেছিলেন, “আমার নিজের মেয়ে যদি অভিনেত্রী হত তাহলে আমি তার সঙ্গেও শুতাম”! রতন ভিডিওতে জানান, ওই ব‍্যক্তি তাঁর সঙ্গে সে অর্থে অভদ্রতা করেননি। কিন্তু তিনি মুখে যা বলেছিলেন, যা ইঙ্গিত করেছিলেন সেটাই মনে গভীর প্রভাব ফেলতে যথেষ্ট ছিল। কোনো সিনেমার জন‍্যই চেষ্টা করেননি তিনি।

রতন বলেন, “আমি যদি এখনো ওই লোকটাকে খুঁজে পাই, ওর মুখে জুতো ছুঁড়ে মারব। যে মুখ দিয়ে নিজের মেয়ের সম্পর্কে এমন নোংরা কথা বলেছিল। আজ যদি আমাকে কেউ এমন কথা বলে, জুতোপেটা করব তাকে।”

Related Articles