টাইমলাইনভারতরাজনীতি

বিচার ঠিক মতো না হলে আজ বাবরি মসজিদ ভাঙছে, কাল আমাদের মাথা ভাঙবে! বললেন অধীর চৌধুরী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আজ বহু প্রতীক্ষিত অয্যোধ্যার বাবরি বিধ্বস্ত  মামলার রায় ঘোষণা করল সিবিআই এর বিশেষ আদালত। আজ এই রায়ে লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলী মনোহর যোশি, উমা ভারতী সমেত ৩২ জন অভিযুক্তকে বেকসুর খালাস করেছে আদালত। বিচারপতি জানিয়েছেন যে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনও উপযুক্ত প্রমাণ পাওয়া যায়নি। আর অভিযুক্তরা কেউ বাবরি ভাঙেন নি, বরঞ্চ ওনারা ভিড়কে বাবরি ভাঙার থেকে আটকানোর চেষ্টা করছিলেন।

আজ সিবিআই এর বিশেষ আদালতের এই রায়তে বিরোধী দল গুলো অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। বিশেষ করে কংগ্রেসের তরফ থেকে একের পর এক বিচার ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। আরেকদিকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী (adhir ranjan chowdhury) বিচার ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বড়সড় অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিচারের বাণী ঠিক মতো না হলে আজ বাবরি মসজিদ ভেঙেছে, কাল আমাদের মাথা ভাঙবে।”

উনি ফেসবুকে একটি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘সারা পৃথিবীর মানুষ চোখের সামনে দেখলো বাবরি মসজিদ ধ্বংস করা হলো। এর থেকে দুর্ভাগ্যের আর কি হতে পারে! দেশের বিচার ব্যবস্থার উপর মানুষের ভরসা থাকছে না, এটা গণতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপক্ষ রাষ্ট্রের জন্য অশনিসংকেত। মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল বিচার-ব্যবস্থা, যারা মুক্তি পেল তারা নিজেরা গর্বিত। বিচারের বাণী ঠিক মতো ধ্বনিত না হলে আজ বাবরি মসজিদ ভাঙছে, কাল আমাদের মাথা ভাঙবে। হয়তো দেখবো আরও একজন বিচারপতি রাজ্যসভার এমপি হচ্ছে।”

আরেকদিকে, আদালতের এই রায়ে AIMIM (All India Majlis-e-Ittehadul Muslimeen) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসিও (Asaduddin Owaisi) প্রশ্ন তুলেছেন। ওয়াইসি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত মেনে নিয়েছিল যে, বাবরি মসজিদ ভাঙা হয়েছিল। কিন্তু আজ যেই রায় ঘোষণা হল, সেটা শুনে বলাই যায় যে আজকের সিদ্ধান্তকে কালা দিবস হিসেবেই দেখা হবে।

হায়দ্রাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, কোনও জাদু মন্ত্র করে মূর্তি রাখা হয়েছিল কি? জাদু মন্ত্র করে তালা খোলা হয়েছিল? আর জাদুর কারণেই কি মসজিদ ভেঙে গিয়েছিল? উনি বলেন, আদালতের এই সিদ্ধান্ত দেশের জন্য কালা দিবস। যেখান দিয়ে এলকে আডবানির রথ যাত্রা গিয়েছিল, সেখানেই রক্তারক্তি হয়েছিল। এতমাস ধরে যখন প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল, তখন এই কাণ্ড আচমকা কি করে হয়ে গেল?

Back to top button