টাইমলাইনবিশেষভারতআন্তর্জাতিক

২০ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া ভারতীয় মহিলার খোঁজ মিলল পাকিস্তানে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : প্রায় কুড়ি বছর আগে মুম্বাইয়ের বাসিন্দা ইয়াসমিন শেখের মা, হামিদা বানু উধাও হয়ে গিয়েছিলেন বাণিজ্য নগরী থেকেই। মায়ের হারিয়ে যাওয়ার খবর টের পেতেই মাকে খুঁজে পেতে কোনরকম ত্রুটি রাখেননি ইয়াসমিন। দীর্ঘদিন ধরে বিস্তর খোঁজাখুঁজিও চলেছিল। কিন্তু অনেক চেষ্টার পরেই পরেও সন্ধান মেলেনি মা হামিদা বানুর। শেষ পর্যন্ত মাকে খুঁজে পেতে সোশ্যাল মিডিয়াকেই হাতিয়ার করেন ইয়াসমিন। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মাকে খুঁজতে একের পর এক পোস্ট করতে থাকেন তিনি।

ইয়াসমিনের কথায় জানা গেছে , শেষবার তিনি যখন তার মায়ের সাথে দেখা করেছিলেন তখন তার মা রান্নার কাজ করতে চলে যাচ্ছিলেন দুবাইতে। দুবাইতে যাওয়ার পর থেকে মায়ের কোনওরকম খোঁজ পাচ্ছিলেন না ইয়াসমিন। আর তারপর মাঝে কেটে গিয়েছে বিশ বছর। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ৭০ বছর বয়সী মায়ের খোঁজ মিলল। মা হামিদা বানু বর্তমানে রয়েছেন পাকিস্থানে।

ইয়াসমিন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন , পাকিস্তানের একটি সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়েছিল এবং সেই ভিডিওর মাধ্যমে ইয়াসমিন খুঁজে পান তার মাকে।

ইয়াসমিন জানিয়েছিলেন, হারিয়ে যাওয়ার দু’চার বছর আগে থেকে তার মা মাঝেমধ্যে কাতারে যেতেন। শেষবার এক এজেন্টের সূত্রে তিনি কাতারে পৌঁছেছিলেন। কিন্তু তারপরেই ঘটে বিপত্তি। আর খোঁজ পাওয়া যায় না তার মায়ের। ইয়াসমিনের সঙ্গে ছিল না কোন রকমের প্রমাণপত্র। তাই কারোর বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আনতে পারেনি ইয়াসমিন। এমনকি মায়ের খোঁজ পেতে ইয়াসমিন সেই এজেন্টের দ্বারস্থ হলেও সেই এজেন্ট তাকে সাফ জানিয়ে দেন, তার মাই নাকি তাদের সাথে আর কথা বলতে ইচ্ছুক নয়। কিন্তু পরবর্তীতে সেই ভিডিওতে তার মা জানান, তাকে জোর করে তার সন্তানের সাথে যোগাযোগ করতে দেওয়া হয়নি। ইয়াসমিন জানিয়েছেন যে তিনি জানতেন তার মা রয়েছেন দুবাই কিংবা কাতারে কিন্তু ভিডিও দেখে প্রথমে তিনি জানতে পারেন যে তার মা আসলেই রয়েছেন পাকিস্তানে।

ইয়াসমিনের বোন ও তার মেয়ের কথায়, এটা সম্পূর্ণ একটা মিরাকেল। ইতিমধ্যেই তারা সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন যাতে তাদের মাকে দেশে ফিরিয়ে আনা যায়।

Related Articles