টাইমলাইনবিনোদন

১০০ কোটির কমে কেউ কাজ করে না, ফ্লপের ভিড়ে কোপ পড়ছে অক্ষয়-খানদের পারিশ্রমিকে

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দক্ষিণী ছবির জয়যাত্রা অব‍্যাহত। অন‍্যদিকে বলিউডের (Bollywood) ভাঁড়ে মা ভবানী। করোনা পরিস্থিতির পর থেকে এমনিতেই হিন্দি ছবির বাজার মন্দা চলছিল। এখন দোসর হয়েছে বয়কট সংষ্কৃতি। নেটদুনিয়ায় বয়কটের ডাকে সোচ্চার নেটনাগরিকরা। আমির খানের (Aamir Khan) ‘লাল সিং চাড্ডা’, অক্ষয় কুমারের (Akshay Kumar) ‘রক্ষা বন্ধন’ মুখ থুবড়ে পড়েছে।

চলতি বছরে যেকটি বলিউড ছবি মুক্তি পেয়েছে তাদের মধ‍্যে স্রেফ আলিয়া ভাটের ‘গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাদি’ এবং কার্তিক কিয়ারা অভিনীত ‘ভুলভুলাইয়া ২’ ভাল ব‍্যবসা করেছে। অন‍্যদিকে দক্ষিণী ভাষার ছবিগুলি প্রতিটিই চুটিয়ে ব‍্যবসা করছে। এমন পরিস্থিতিতে বলিউড অভিনেতাদের পারিশ্রমিক কমানোর দাবি উঠেছে।


বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র সৈয়দ জাফর ইসলাম একটি টুইটে লিখেছেন, ‘বলিউড তারকারা ফ্লপের পর ফ্লপ দেখা সত্ত্বেও বাস্তবটা বুঝতে পারছেন না। তারকারা যদি যুক্তিসম্মত পারিশ্রমিক নিতে শুরু করেন তাহলে প্রযোজকরাও জাতীয় স্বার্থে ভাল ছবি বানানোর দিকে মনোনিবেশ করতে পারবে। মনে রাখবেন OTT কিন্তু ভাল এবং সাশ্রয়ী বিকল্প দর্শকদের কাছে।’

টুইটে অক্ষয় কুমার, শাহরুখ খান এবং সলমন খানকে ট‍্যাগ করেছেন বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র। সম্প্রতি বলিউডের পরিচালক প্রযোজক বিবেক ভাসওয়ানিও মুখ খুলেছেন হিন্দি সিনেমার তারকাদের পারিশ্রমিক নিয়ে। তাঁর দেওয়া তথ‍্য অনুযায়ী, সবথেকে বেশি পারিশ্রমিক নেন অক্ষয় কুমার। তিনি নেন প্রায় ১১৫-১১৭ কোটি টাকা।

শাহরুখ সলমন পারিশ্রমিক হিসাবে ১০০ কোটি আর সিনেমার লাভের শেয়ারও নেন। আমির খানের বরাদ্দ ছবির লাভের ৮০ শতাংশ। দুই রণবীর, কার্তিক আরিয়ানদের পারিশ্রমিক ৫০-৩০ কোটি টাকার ম‍ধ‍্যে ঘোরাফেরা করে।

বিবেকের বক্তব‍্য, অক্ষয় এবং তিন খান এত বিপুল পরিমাণে টাকা দাবি করেন যাতে সত‍্যিই পরিচালক প্রযোজকদের উপরে বেশ চাপ পড়ে যায়। অথচ এখন কোনো খান বা অক্ষয়ই হিট ছবি দিতে পারছেন না। তাই অন্তত চক্ষুলজ্জার খাতিরেই তাঁদের পারিশ্রমিক কমানো উচিত বলে মত প্রযোজকের।

Related Articles