টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গকলকাতা

কলকাতায় ফের উদ্ধার পাহাড় প্রমাণ টাকা! চলছে গণনা প্রক্রিয়া, ব্যাংক কর্মী ডেকে এনেছে ED

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আগে গুপ্তধনের সন্ধানে জাহাজ নিয়ে বেরিয়ে পড়েছিলেন বহু মানুষ। তবে সেসব দিন এখন অতীত। বর্তমানে আর কাউকে গুপ্তধনের সন্ধানে যেতে দেখা যায় না। তবে এই কলকাতায় নাকি অনেক গুপ্তধন লুকিয়ে আছে, আর সেই ধনের সন্ধানে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ED বারবার বহু জায়গায় হানা দিয়েছে। উদ্ধার করেছে কয়েক কোটি টাকা। এবার ফের তারা সেই লুকনো ধনের সন্ধানে বেরিয়েছে। এবার তাদের লক্ষ্য কলকাতার লোয়ার রাউডেন স্ট্রিটের একটি অফিস।

ED-র অফিসাররা ওই অফিসে কয়েক ঘন্টা তল্লাশি চালানোর পর সেখানে টাকা গোনার মেশিন নিয়ে প্রবেশ করতে দেখা যায় এক ব্যাংক আধিকারিককে। এরপরেই সেখান থেকে ফের বিপুল টাকা উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে, এই বিষয়ে ইডির তরফ থেকে কিছু জানান হয়নি। কিন্তু আশংকা করা হচ্ছে যে টাকা মেলার খবর নেহাতই গুজব নহে।

জানা গিয়েছে যে, ইডির আধিকারিকরা সোমবার বিকেল চারটের দিকে সংস্থার অফিসে হানা দেয়। মোট ছয়জন অফিসারের  দল এই তল্লাশির অংশ ছিলেন। মিডিয়া রিপোর্ট মতে, ওই তল্লাশিতে বিপুল পরিমাণ অর্থ মেলে। তবে ঠিক কত টাকা নগদ মিলেছে তা জানা যায়নি। অফিসে এত নগদ টাকা কীভাবে এল? কর্মীরা তা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি বলে জানা গিয়েছে। টাকার উৎসের খোঁজ পেতে নথিপত্র হাতাচ্ছেন আধিকারিকরা। সুত্রের খবর ওই সংস্থা বিভিন্ন কোম্পানিকে বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের পরামর্শ দিয়ে থাকে।

তবে এই প্রথম না যে কলকাতায় এমন তল্লাশি চালিয়ে টাকা উদ্ধার করল ইডি। এর আগে তৃণমূলের প্রাক্তন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ‘কাছের মানুষ” এর ফ্ল্যাটে হানা দিয়ে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার করেছিল ইডি। দু’বার দুই ফ্ল্যাটে হানা দিয়ে গুপ্তধনের খোঁজ পেয়েছিল তারা। পাশাপাশি গার্ডেনরিচের ব্যবসায়ীদ আমির খানের বাড়ি থেকে ১৭ কোটি ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়েছিল। বারংবার এত এত টাকা উদ্ধারের কাণ্ড নিয়ে বাংলার রাজনীতিতে ঝড় উঠছে।

Related Articles