টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

করোনা মোকাবিলায় বাংলার সব মসজিদ ও ওয়াকফ সম্পত্তি ব্যবহার করার আর্জি ওয়াইসির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে (Corona)হাহাকার দেশজুড়ে। স্বজন হারানোর কান্না। অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়ছেন শয়ে শয়ে নিরাপরাধ মানুষ। হাসপাতালের বেডে বা বাইরে তিলে তিলে স্তব্ধ হচ্ছে এক একটি প্রাণ। শ্বশানে নীরবতার জো নেই, জ্বলছে একের পর এক আগুন। কোভিডে মৃতের দেহ জমে জমে তো দেশের একাধিক জায়গায় স্তুপ হচ্ছে। এরাজ্যের অবস্থাও বেগতিক।

ইতিমধ্যেই বাংলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছড়িয়েছে ১৫ হাজরের গণ্ডি। এমন উদ্বেগজনক পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য সরকার ও  ওয়াকফ বোর্ডকে একটি আর্জি জানাল আসাদউদ্দীন ওয়াইসির AIMIM। তারা রাজ্যের সব মসজিদ এবং অব্যবহৃত ওয়াকফ সম্পত্তি গুলো করোনা মোকাবিলায় ব্যবহারের আর্জি নিয়ে রাজ্য সরকার এবং ওয়াকফ বোর্ডের (AUQAF Board) চেয়ারম্যানকে চিঠি লিখেছে। মঙ্গলবারই রাজ্য মিম ইউনিটের তরফে এই চিঠি লেখা হয়।

An Images

মিমের রাজ্য সম্পাদকের তরফে পাঠানো ওই চিঠিতে লেখা হয়েছে, করোনার মত সংক্রামক ব্যাধি রুখতে রাজ্যের সব মসজিদ এবং ওয়াকফ সম্পত্তি গুলি ব্যবহার করা হোক। চিঠিতে তিনি এও উল্লেখ করেছেন যে, কোরআন অনুসার, কারোর জীবন বাঁচানো (জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে) মানে মানবতাকে রক্ষা করা। তাই রাজ্যের মসজিদ এবং অব্যবহৃত ওয়াকফ সম্পত্তি গুলো আইসোলেশন ওয়ার্ড বা সেফ হোম হিসেবে ব্যবহার করা হোক। এই মসজিদ এবং ওয়াকফ সম্পত্তি গুলিতে ১০ টি করে আইসোলেশন ওয়ার্ড ও সেফ হোম তৈরি করার আর্জি জানিয়েছে তারা।

উল্লেখ্য, বিহার ভোটে সাফল্যের পর একুশের বিধানসভা ভোটের (Assembly Election 2021) আগে এরাজ্যের দিকে নজর স্থির করেছিল আসাদউদ্দীন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi)। লক্ষ্য ছিল সংখ্যালঘু ভোট। তবে শেষ পর্যন্ত আব্বাস সিদ্দিকীর ISF-র ফলে তা আর সম্ভব হলনা। শুধুমাত্র মালদাহ এবং মুর্শিদাবাদের কয়েকটি সংখ্যালঘু আসনেই লড়ছে মিম। তার আগে রাজ্যের সব মসজিদ এবং ওয়াকফ সম্পত্তি গুলি আইসোলেশন ওয়ার্ড এবং সেফ হোম তৈরি আর্জি জানিয়ে নিজেদের ধর্ম নিরপেক্ষ প্রমান করার চেষ্টা করল মিম বলে মত বিশেষজ্ঞ মহলের।

Related Articles

Back to top button