টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

নোবেলের পর এবার CPM-র তরফ থেকে বড় পুরস্কার পাচ্ছেন অমর্ত্য সেন

বাংলাহান্ট ডেস্ক : তিনি অমর্ত্য সেন (Amartya Sen)। অর্থনীতিতে নোবেলজয়ী (Noble in Economics) প্রথম বাঙালী তিনি। গবেষণার পাশাপাশি লেখালেখির জগতেও তাঁর সমান অবদান। ‘হোম ইন দ্য ওয়ার্ল্ড: এ মেমোয়ার’ বইটির জন্য সিপিএমের (CPM) পক্ষ থেকে মুজফ্ফর আহমেদ ট্রাস্ট স্মৃতি পুরস্কার পাচ্ছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ। আজ শুক্রবার বিকেলে মহাজাতি সদনে সিপিএমের অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। তবে জানা যাচ্ছে তিনি নিজে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকছেন না। সিপিএমের দলীয় সূত্রে খবর, তাঁর তরফে ‘প্রতীচী’ (Pratichi) ট্রাস্টের হাতে তুলে দেওয়া হবে এই সম্মানীয় পুরস্কার।

মূলত লেখালেখির জগতে বিশেষ অবদানের জন্যই মুজফ্ফর আহমেদ ট্রাস্ট স্মৃতি পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে। এই পুরস্কার কমিটির সভাপতি হলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)। ২০১৪ সালে মরণোত্তর মুজফফর মুজফ্ফর আহমেদ স্মৃতি পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল বিখ্যাত ইতিহাসবিদ অমলেন্দু দে’কে। তাঁর লেখা ঐতিহাসিক গ্রন্থ – ‘সিরাজের পুত্র ও বংশধরদের সন্ধানে’র জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয় অমলেন্দু বাবুকে। একটি মানপত্র ছাড়াও ১০ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয় পুরস্কার হিসাবে।

ভারতীয় কমিউনিস্ট (Communist) আন্দোলনের অন্যতম জনপ্রিয় নেতা ছিলেন মুজফ্ফর আহমেদ। তাঁর ১৩৪ তম জন্মবর্ষ এবার। এ বছর নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেনকে বেছে নেওয়া হয়েছে তাঁর স্মৃতিবিজড়িত অর্থাৎ মুজফ্ফর আহমেদ ট্রাস্ট স্মৃতি পুরস্কারের জন্য। তাঁর লেখা ‘হোম ইন দ্য ওয়ার্ল্ড: এ মেমোয়ার’ বইটি এই পুরস্কার পাচ্ছে। মূল বইটি ইংরাজি ভাষায় লেখা। তবে এর বাংলা অনুবাদটির নাম ‘জগৎকুটির’। বইয়ের বাজারে এটি খুবই সহজলভ্য একটি বই।

কী আছে এই বইটিতে? বিখ্যাত বইটির সম্পর্কে পুরস্কারদাতা কমিটির বক্তব্য, মায়ানমারে (Myanmar) রোহিঙ্গা মুসলিমদের উপর যে অকথ্য অত্যাচার করা হয়েছিল তারই বর্ণনা। এছাড়া রয়েছে ভারতীয় জীবনে সাম্প্রদায়িকতার ভূমিকা তথা অবদানের ইতিহাসও।

এই মুহূর্তে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ দেশে নেই। তাই শুক্রবার সিপিএমের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি সরাসরি থাকতে পারবেন না বলেই জানিয়েছেন। সিপিএম সূত্রে খবর, অমর্ত্য সেনের ‘প্রতীচী’ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে ডিরেক্টর ড. মানবী মজুমদার এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন। নোবেলজয়ীর কন্যা তথা ‘প্রতীচী’ ট্রাস্টের ম্যানেজিং কমিটির ট্রাস্টি অন্তরা দেব সেন এই খবর সংবাদমাধ্যমকে জানান।

Related Articles

Back to top button