টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

ছাড় পেল না অ্যামাজনও! আদিবাসীর শরীরে মিলল করোনা ভাইরাসের জীবাণু

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনাভাইরাস (corona virus) ছড়িয়ে পড়েছে দেশের সব জায়গায়তেই। ছাড় পেল না গভীর অরন্যও। এবার এক আদিবাসী (Aboriginal) তরুণীর দেহে মিলল COVIED-19 এর জীবাণু। ঘটনাটি ঘটেছে অ্যামাজনের গভীর অরণ্যে (deep forests of the Amazon)।

ব্রাজিলের (Brazil) স্বাস্থ্য মন্ত্রণকের তরফে জানানো হয়েছে, অ্যামাজনের গভীরে বসবাসকারী কোকামা উপজাতির ২০ বছরের একটি তরুণী করোনা পজিটিভ হয়েছে। ব্রাজিল-কলম্বিয়া সীমান্তের কাছাকাছি স্যান্টো আন্তোনিও দো ইকা জেলায় একটি আদিবাসী গ্রাম রয়েছে। ওই গ্রামেরই বাসিন্দা তরুণীটি। ওই গ্রামে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ বাস করে বলে জানা গিয়েছে।

 

উদ্বেগের এখানেই শেষ নয়। ওই গ্রামের আরও চারজনের দেহে করোনার উপস্থিতি মিলেছে। তারা অবশ্য উপজাতির সদস্য নন। আক্রান্তদের মধ্যে একজন ডাক্তার রয়েছেন। মনে করা হচ্ছে ওই গ্রামে মানুষের সেবা করতে যাওয়া ওই ডাক্তারের শরীর থেকেই আক্রান্ত হয়েছেন গ্রামের চারজন। ওই উপজাতির মধ্যে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়লে বড়সড় বিপদের শঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছে ব্রাজিলের প্রশাসন।

ব্রাজিলের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ও তরুণী আদিবাসী স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে কাজ করেন। ফলে সেই ডাক্তারের শরীর থেকেই তিনিও সংক্রমিত হয়েছেন বলে মনে করছে ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রক। যদিও গত কয়েকদিন ধরে ওই ডাক্তারের সংস্পর্শে ছিলেন ১৫ জস্বাস্থ্যকর্মী ও ১২ জন রোগী। তাঁদের সবার শরীরে অবশ্য করোনার উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়নি। জানা গিয়েছে, ওই ডাক্তার কিছুদিন আগেই দক্ষিণ ব্রাজিলে দেশের অন্যতম বড় আদিবাসী গোষ্ঠী তিকুনার সঙ্গে কাজ করে ফিরেছিলেন। ফলে তিনুকা উপজাতির (Tinuka tribe)  মধ্যেও কেউ কেউ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

 

Back to top button