টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

বাংলায় NRC নিয়ে বড় ঘোষণা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ পঞ্চম দফা ভোটের আগে মোদী ক্যাবিনেট এখন বাংলায়। একুশের প্রেস্টিজ ফাইটকে পাখির চোখ করে নিয়মিত দিল্লি থেকে উড়ে আসছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বরা। আজ সেই মত একই সাথে বঙ্গে প্রচারে পা মেলাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah), প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। তাঁদেরকে দিয়ে নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলতে চলেছে গেরুয়া শিবির (BJP)।

ইতিমধ্যেই পাহাড়ে নির্বাচনী প্রচার শুরু করে দিয়েছেন বিজেপির ‘সেকেন্ড ইন কমান্ড’। সেখান থেকে তিনি এবার এনআরসি নিয়ে চমকপ্রদ ঘোষণা করলেন। তিনি জানালেন, এখনই বাংলায় এনআরসি করা নিয়ে কোনও পরিকল্পনা নেই বিজেপির। উল্লেখ্য, পাহাড়ে গোর্খাদের মধ্যে এনআরসি নিয়ে একটি ভীতি তৈরি হয়েছে। এদিন তাই গোর্খাদের মন জয় করতেই অমিত শাহের এহেন ঘোষণা বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

WB Asembly Election 2021: Amit Shah Live: ক্ষমতায় এলে গোর্খাদের বিরুদ্ধে সব মামলা তুলে নেওয়া হবে | WB Asembly Election 2021, Live: Will withdraw all cases against Gorkhas related to GTA movement

তবে এনআরসি (NRC) হওয়ার বিষয়টিও তিনি জিইয়ে রাখলেন এদিনও। তিনি বললেন, যদি পরে এনআরসি হয়ও, তাতে আমার গোর্খা ভাই-বোনেদের কোনও চিন্তার কারণ নেই। কারণ তাঁরা বহিরাগত নয়। উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই বঙ্গে মিটে গেছে চার দফার ভোট পর্ব। বাকি আরও চারটি দফা। সেখানেই এনআরসি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ আসন্ন দফা গুলিতে সংখ্যালঘুদের প্রভাব আছে ভালই এবং পাহাড়ের তিনটি আসনও গেরুয়া শিবিরের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই বিজেপির বহুদিনের ঘোষিত কর্মসূচি এখানে বুমেরাং হয়ে উঠতে পারে বলে আগেই আন্দাজ করে ফেলেছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বরা। সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই ‘চাণক্য’-র এদিনের ঘোষণা বলে মনে করছেন অনেকেই।

পাশাপাশি, এদিন সভামঞ্চ থেকে অমিত শাহ দাবি করেন, এত দিন যাবৎ পাহাড়ে গোর্খা ভাই-বোনেদের সাথে অন্যায় হয়েছে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে তার স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধানের প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। জানিয়ে দি, পাহাড়ের দাবি, গোর্খা অধ্যুষিত এলাকাগুলি নিয়ে গোর্খাল্যান্ড গড়ে তোলা। অর্থাৎ পৃথক রাজ্য গড়ে তোলা। সেখানে অমিত শাহের এদিনের প্রতিশ্রুতি অর্থাৎ গোর্খাদের সমস্যার স্থায়ী সমাধান কি ? তাঁর উত্তর এবার খুঁজতে হবে গেরুয়া শিবিরকে।

Back to top button