টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিনোদনরাজনীতি

‘বাংলার এই অশান্তি প্রত্যাশিত ছিল, মমতা কেন নিজেই অশান্তি পাকাতে যাবেন?’- ট্যুইট অপর্ণার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ নির্বাচনের ফল প্রকাশ হতেই বাংলার (west bengal) বিভিন্ন প্রান্ত জ্বলে উঠেছে হিংসার আগুন। ভোট পরবর্তী বাংলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রকাশে আসছে নানা সংঘর্ষের চিত্র। তৃণমূল বিজেপির মধ্যেকার ঝামেলার রেশে খুন, বোমাবাজি, মারধরের অভিযোগ উঠছে গোটা বাংলা থেকেই। এই পরিস্থিতিতে মুখ খুললেন অভিনেত্রী অপর্ণা সেন (aparna sen)।

বর্তমান সময়ে বাংলায় জ্বলে ওঠা হিংসার আগুনে অভিযোগের তীর প্রথম থেকেই তৃণমূলের দিকে রেখেছে বিজেপি এবং সংযুক্ত মোর্চা। তাঁদের দাবি, নির্বাচনের জয়ের পর তাণ্ডব চালাচ্ছে তৃণমূলের দুস্কৃতীরা। কর্মীদের মারধর করে তাঁদের ঘর বাড়ি ভাঙচুর এবং জ্বালিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

তবে ভোট পরবর্তীতে বাংলায় হিংসার আগুন ছড়িয়ে পড়াটা অপ্রত্যাশিত ছিল না বলেই দাবি করলেন অভিনেত্রী অপর্ণা সেন। দিল্লী দাঙ্গার কথা স্মরণ করিয়ে তিনি, এই হিংসার জন্য বিজেপির পরাজয়ের বহিঃপ্রকাশ বলেই দাবি করলেন। তাঁর কথায় হেরে গিয়েই সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি।

ট্যুইটে তিনি লেখেন, ‘ভোট পরবর্তী বাংলার এই হিংসা একেবারেই অপ্রত্যাশিত নয়, তবে ভয়ানক। আপনাদের মনে আছে, দিল্লী নির্বাচনে আপ পার্টি জিতে যাওয়ার পর কেমন দাঙ্গা হয়েছিল রাজধানীতে? মমতা কেন শুধু শুধু নিজের রাজ্যে অশান্তি পাকাতে যাবেন? এর জন্য তো তাকেই দায়ী করা হবে!’

বাংলায় এই ভোট পরবর্তী হিংসার আগুন জ্বলে ওঠায় গতকাল কলকাতায় এসেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। কথা বলেছেন নিহত বিজেপি কর্মীদের পরিবারের সঙ্গে, আশ্বাস দিয়েছেন পাশে থাকার। অভিযোগ করেছেন, ‘বাংলার আইন- শৃঙ্খলা ভেঙে গিয়েছে’। এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ দেশজুড়ে ধর্নার ডাক দিয়েছে বিজেপি শিবির। অন্যদিকে আজই তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি।

Back to top button