টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

আপনি কি নগ্ন হতে প্রস্তুত! তাহলে চলে যান এই গ্রামে, শুধু পোশাক পরা মানা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ নগ্ন কথাটা শুনলে আমরা লজ্জা পাই, এককথায় বলতে আমরা অপ্রস্তুতে পড়ে যাই। কিন্তু যদি আপনি নগ্ন হতে প্রস্তুত! তাহলেই এই গ্রামে আপনার জন্যে তৈরি রয়েছে জমি। শুধু জমিই নয়, রীতিমত বাড়ি-ঘরে থাকার সুযোগও পাবেন। তবে একটাই শর্ত হতে হবে আপনাকে নগ্ন! অবাক লাগছে তো?

হ্যাঁ, এই বিশ্বে এমন একটি গ্রাম রয়েছে যেখানে আপনি নগ্ন হলেই মিলবে থাকার সুযোগ। ভাবছেন তো কোথায় সেটা! ব্রিটেনের (Britain) হার্টফোর্ডশায়ারে অবস্থিত স্পিলপ্লাজ নামে এই গ্রামে এমনই রীতি! কারণও আছে, ওই গ্রামে কেউ কাপড়ই পরে না। তাই সেখানে থাকতে চাইলে তাদের মতো করেই থাকতে হবে আপনাকে।

নগ্ন বিচের কথা শোনা গেছে, নগ্ন পার্ক তো বিশ্বের বিভিন্ন জায়গাতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। কিন্তু নগ্ন গ্রামের কথা কেউ অতটা সহজে কেউ শুনেছে বলে মনে হয় না! দক্ষিণ আমেরিকায় ঘনজঙ্গলে কিছু আদিবাসী আছে যারা এখনও সভ্যতার ছোঁয়া পায়নি।

তাদের ব্যাপার হলে ভিন্ন কথা ছিল। কিন্তু সভ্যতার পথপ্রদশক বলে যারা নিজেদের দাবি করে সেই ব্রিটেনের বুকে এমন গ্রামের কথা শুনলে অনেকেই হয়ত অবাক হবেন। তবে গ্রামবাসী অবশ্য নগ্নতার মধ্যে অসভ্যতার কিছু দেখেন না।

মজার ব্যাপার হচ্ছে- ওই গ্রামের মানুষ বেশ সচেতন ও শৌখিন। তারা গায়ে কাপড়ের কোন পোশাক না পরলেও রোদ থেকে চোখ বাঁচাতে সানগ্লাস ঠিকই ব্যবহার করেন। গলায় সোনার চেন, এমনকি আঙ্গুলে আংটিও পরেন শখ করে। গ্রামের ভেতর বেশ সমৃদ্ধ বারও আছে। শুধু পোশাকই নেই গায়ে।

এই গ্রামের বাসিন্দা ৮৫ বছর বয়সী ইছিয়ুট রিচার্ডসন জানিয়েছেন, আমি বুঝি না এটা নিয়ে এত হৈচৈ করার কি আছে। আমি তো অন্য গ্রামের সঙ্গে এই গ্রামের কোনো পার্থক্য দেখি না। ওরা যেভাবে জীবন ধারণ করে আমরাও সেইভাবে করি।

সকালে ঘুম থেকে উঠি, দিনের কাজ শুরু করি, বাজারে যাই, পানশালায় যাই, দুধওয়ালা, পোষ্টম্যানরা আমাদের বাড়িতে আসে। সবই তো স্বাভাবিত, অস্বাভাবিক তো কিছু দেখি না। আমরা শুধু বস্ত্রহীন থাকি, এই যা!

Related Articles

Back to top button