টাইমলাইনবিনোদন

মুখ বুজে থেকে থেকে পেয়ে বসেছে দর্শকরা, ভদ্রতাটা দুর্বলতা ভাবা হচ্ছে, বয়কট ট্রেন্ড নিয়ে তুলোধনা অর্জুনের

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কঠিন সময়ের মধ‍্যে দিয়ে যাচ্ছে বলিউড (Bollywood)। প্রথমে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে টক্করে ফ্লপ, আর এখন বলিউডের নিজস্ব ছবিই বাতিল করছে দর্শকরা। ইতিমধ‍্যেই ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের মতো অভিযোগ তুলে বয়কট করানো হয়েছে আমির খানের লাল সিং চাড্ডা, অক্ষয় কুমারের ‘রক্ষা বন্ধন’। বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে আরো একাধিক তারকার ছবিকে। বিষয়টি নিয়ে শেষমেষ মুখ খুলেছেন অভিনেতা অর্জুন কাপুর (Arjun Kapoor), আগামীতে তাঁর ছবি মুক্তির অপেক্ষায়।

বলিউড তারকাদের অপমান, নিন্দা করতে কোনো সুযোগ ছাড়ছেন না নেটনাগরিকদের একাংশ। গুরুতর অভিযোগ তোলা হচ্ছে প্রথম সারির তারকাদের বিরুদ্ধে। কয়েকশো কোটি টাকার ছবি মুখ থুবড়ে পড়ছে বক্স অফিসে। সবটা দেখেশুনে ক্ষুব্ধ অর্জুন।


সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অত‍্যন্ত চাঁচাছোলা ভাষায় তিনি বলেন, “আমার মনে হয় দীর্ঘদিন ধরে মুখ বন্ধ রেখে রেখে আমরা ভুল করেছি। আমাদের ভদ্রতাটা আমাদের দুর্বলতা বলে ধরে নেওয়া হয়েছে। আমরা সবসময় বিশ্বাস করে এসেছি যে কাজই কথা বলবে। বাকি কিছুই যায় আসে না।”

দু বছর আগে শুরু হয়েছে এই বয়কটের ট্রেন্ড। দর্শকরা অপমান করে ছবি বয়কট করছে। অর্জুনের কটাক্ষ, “আমরা একটু বেশিই সহ‍্য করে নিয়েছি। এখন মানুষ মাথায় চড়ে বসেছে।” তাহলে কি এই বয়কট সংষ্কৃতির কোনো শেষ নেই? এটাই কি বলিউডের অন্ত?

অর্জুন বলেন, “বিনোদন ইন্ডাস্ট্রি হিসাবে আমাদের একজোট হওয়া উচিত আর এই বয়কট সংষ্কৃতির মূলটা খুঁজে বের করা উচিত। কারণ যা যা লেখা হচ্ছে, যেসব হ‍্যাশট‍্যাগ ব‍্যবহার করা হচ্ছে সেগুলো বাস্তবের থেকে অনেক দূরে।” অর্জুনের মতে, কোনো বড় উদ্দেশে এসব করা হচ্ছে।

অভিনেতা স্বীকার করেন, বলিউডের আগের জৌলুস হারিয়ে গিয়েছে। গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাদি দিয়ে বছরের শুরুটা ভাল হলেও তারপর থেকে একের পর এক ছবি ফ্লপ হয়েছে। বিশেষত গত দু মাস বলিউডের জন‍্য সবথেকে খারাপ সময় ছিল, কারণ একটি ছবিও ভাল ফল করতে পারেনি। তিনি এও বলেন, কিছু কিছু ছবি সত‍্যিই ভাল ছিল না। আর বয়কটকারীরা তাতেই আরো জোর পেয়েছে।

Related Articles