টাইমলাইনকলকাতা

ঠিক যেন সিনেমা! প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে প্রতারককে গ্রেফতার, দিশার বীরত্বকে স্যালুট জানাচ্ছে নেটিজেনরা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ পায়েল শর্মা নামে ফেসবুকে খোলা হয় ফেক প্রোফাইল। সাব-ইন্সপেক্টর দিশা মুখোপাধ্যায়ের পাতা জালে ধরা দেয় অভিযুক্ত। এরপর তাঁর সঙ্গে কলকাতায় দেখা করার আছিলায় গ্রেফতার করা হয় ভুয়ো নামধারী অঙ্গদ মেহতাকে। মহিলা পুলিশের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা।

কলকাতা পুলিশ (kolkata police) সূত্রে খবর, অগাস্ট মাসে গড়িয়াহাট থানায় FIR দায়ের করেন এক গহনা ব্যবসায়ী। তাঁর অভিযোগ ছিল, অঙ্গদ মেহতা নামে এক ব্যক্তি প্রায় ১ লাখ ৯০ হাজার টাকার গয়না অর্ডার দিয়ে হিন্দুস্তান পার্কের এক গেস্ট হাউজে নিয়ে যেতে বলেন এবং বলেন ক্যাশ অন ডেলিভারি করবেন।

ক্রেতার কথা মত দোকানের দুই কর্মীকে দিয়ে নির্দিষ্ট ঠিকানায় গহনা পাঠান দোকানী। কিন্তু দোকানের কর্মীদের থেকে গহনা নিয়ে স্ত্রীকে দেখানোর নাম করে সেখানে থেকে চম্পট দেয় অঙ্গদ মেহতা। এমনকি ফোনও বন্ধ করে রাখেন তিনি।

এরপর ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ গেস্ট হাউজ থেকে একটি ছবি পায় অঙ্গদ মেহতার। প্রতারককে ধরতে ফিল্মি কায়দায় জাল বিছায় পুলিশ। পায়েল শর্মা নামে ফেসবুকে একটি ফেক প্রোফাইল খলেন সাব-ইন্সপেক্টর দিশা মুখোপাধ্যায়। তারপর ভাব জমান অভিযুক্তের সঙ্গে।

ধীরে ধীরে একদিন তাঁর সঙ্গে দেখা করার জন্য বায়না ধরেন। ‘পায়েল’র কথায় রাজি হয়ে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে কলকাতায় আসতে রাজি হন অঙ্গদ মেহতা। পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক ৪ ঠা সেপ্টেম্বর সে মিলেনিয়াম পার্কে এলেই তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জেরায় জানা যায়, অঙ্গদ মেহতা তাঁর ছদ্মনাম। ৩ বছর হায়দরাবাদের চঞ্চলগুড়া সংশোধনাগার, এমনকি পোর্ট ব্লেয়ারেও ছিলেন কিছুদিন। এভাবেই নাম ভাড়িয়ে একাধিক জায়গায় থেকে জালিয়াতির ঘটনায় জড়িত রয়েছেন ওই ব্যক্তি।

Related Articles

Back to top button