টাইমলাইনভারতরাজনীতি

৬৭ লক্ষ টাকা ঘুষ দিয়েও প্রার্থী তালিকায় নেই নাম, থানায় কেঁদে ভাসালেন নেতা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বিধানসভা ভোটের টিকিট দেওয়ার নাম করে, নেওয়া হয় ৬৭ লক্ষ টাকা! কিন্তু টিকিট না পাওয়ায় থানায় গিয়ে হাউহাউ করে কান্নায় ভেঙে পড়েন বিএসপি নেতা আর্শাদ রানা (Arshad Rana)। তাঁর অভিযোগ, বিধানসভা ভোটের টিকিট দেওয়ার নাম করে ধাপে ধাপে তাঁর থেকে ৬৭ লক্ষ টাকা নেওয়া হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের প্রাক্কালে এমন ঘটনায় প্রবল অস্বস্তিতে পড়ে গেলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়াবাতী। ছার্তাওয়াল বিধানসভার বিএসপি (BSP) পর্যবেক্ষক আর্শাদ রানার (Arshad Rana) এমন মন্তব্যের পরই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আর্শাদ রানা অভিযোগ করেছেন, ২০১৮-তে মুজাফ্ফরনগর জেলার ওই বিধানসভার পর্যবেক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হওয়ার দু তিনদিন আগেই তাঁকে ছার্তাওয়াল বিধানসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করার আশ্বাস দিয়েছিলেন বিএসপি-র পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের পর্যবেক্ষক শামসুদ্দিন রায়না।

এখানেই শেষ নয়, তিনি আরও অভিযোগ করেন, প্রার্থী করার জন্য তাঁকে বেশকিছু টাকা দিতে হবে বলেও জানানো হয়। আর সেই কারণে প্রথমে সাড়ে ৪ লক্ষ, তারপর ৫০ হাজার এবং শেষে ১৭ লক্ষ টাকা ধাপে ধাপে নেওয়া হয় তাঁর থেকে। আর এই বিষয়ে দলের শীর্ষ নেতা নরেশ গৌতম, প্রেমচন্দ গৌতম, সতপাল কাটারিয়া অবগত বলেও জানান তিনি।

কিন্তু এসবের পর ওই কেন্দ্র থেকে সলমন সায়িদকে বিএসপি প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত করা হয়। এরপর বৃহস্পতিবার কোতয়ালি থানায় গিয়ে দলীয় নেতৃত্বদের বিরুদ্ধে আর্থিত তছরুপের অভিযোগ জানায় আর্শাদ রানা এবং সাংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে কার্যত হাউহাউ করে কাঁদতে শুরু করেন।

Related Articles

Back to top button