টাইমলাইনরাজনীতি

‘প্রায়শ্চিত্ত’ করতে মাথা মুড়িয়ে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে গিয়েছিলেন, এবার সেই দলও ছাড়লেন ত্রিপুরার আশিস

বাংলাহান্ট ডেস্ক : দল ত্যাগের যেন হিড়িক পরে গেছে ভারতীয় রাজনীতিতে। পশ্চিমবঙ্গের নেতারা তো রীতিমতো ইতিহাস সৃষ্টি করে ফেলেছেন দল ত্যাগ করার বিষয়ে। এবার পিছিয়ে রইল না ত্রিপুরাও। গত বছর অক্টোবরে ত্রিপুরার বিজেপি বিধায়ক আশিস দাস ঘোষণা করেন দল ছাড়ছেন তিনি। কালীঘাটে এসে আশিস জানান, প্রায়শ্চিত্ত করতে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন তিনি। কিন্তু ছ’মাসের মধ্যেই মোহভঙ্গ হল তাঁর। তুললেন একাধিক অভিযোগও।

বিজেপি ছেড়ে কালীঘাটে এসে মাথা মুড়িয়ে আদিগঙ্গায় স্নান করেছিলেন ত্রিপুরার সুরমার বিধায়ক আশিস দাস। বলেছিলেন এবার প্রায়শ্চিত্ত করতে চাই। গত অক্টোবরে দুর্গাপুজোর সময়ই যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলে। কিন্তু মাত্র ছ’মাসেই কি দিব্য দৃষ্টি প্রাপ্ত হল আশিসের? মোহভঙ্গ হল আশিসের। এ বার সাংবাদিক বৈঠক করে ওই বিধায়ক ছাড়লেন তৃণমূলও। অভিযোগ করলেন, ত্রিপুরা নির্বাচনে ভোট ভাগাভাগি করে বিজেপিকেই আখেরে সুবিধা করে দিচ্ছে তৃণমূল। তাই তাঁর এই দলত্যাগের সিদ্ধান্ত।

শুক্রবার ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন আশিস। তাঁর অভিযোগ, যে আশা নিয়ে তিনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন, সেই আশা ভঙ্গ হয়েছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে বিজেপি থেকে বেরিয়ে আসা আশিসের কথায়, ‘তৃণমূলে দলবাজি খুব বেশি। দলে আমাকে কোণঠাসা করে রাখা হচ্ছে। এখানে কাজের কোনও পরিসর নেই।’ তাঁর আরও অভিযোগ, ত্রিপুরার নির্বাচনে ভোট কাটাকাটি করে বিজেপিকেই সুবিধা করে দিচ্ছে তৃণমূল। আশিস জানান, যে উৎসাহ নিয়ে তিনি তৃণমূলে এসেছিলেন, তা একদমই হারিয়ে ফেলেছেন।

ashish das

তৃণমূল সূত্রে খবর, আগামী নির্বাচনে সুরমা থেকে তাঁকে প্রার্থী করার কথা ভাবা হচ্ছিল। অন্য একটি সূত্র জানাচ্ছে, সেই সম্ভাবনা খুব কম জেনেই দলত্যাগ করেছেন আশিস। কংগ্রেস থেকে বিজেপি হয়ে এখন তৃণমূলও ছাড়লেন। এ বার কি অন্য কোনও দলে যোগ দেবেন? আশিস অবশ্য এখনই কোনও মন্তব্য করতে নারাজ। তবে তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য, সুরমার মানুষ যদি চায় তাহলে সেখান থেকে নির্দল প্রার্থী হিসেবেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি।  আশিসের দল ছাড়া নিয়ে যদিও এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি তৃণমূলের উচ্চস্তরের নেতারা।

Related Articles

Back to top button