টাইমলাইনভারতরাজনীতি

অসমে ১৪-র মধ্যে ১০ আসন জয়ের লক্ষ্য তৃণমূলের, হিমন্তর রাজ্যে গিয়ে হুঙ্কার অভিষেকের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বাংলা বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল পরিমাণে জয়ের পর থেকেই 2024 সালে লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস দল। কেন্দ্রে বিজেপি সরকারকে সরাতে এবং নিজেদের অবস্থানকে আরো মজবুত করে তোলার জন্য বাংলা ছাড়াও বিভিন্ন রাজ্যে দলের বিস্তার ঘটিয়ে চলেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এক্ষেত্রে তাদের প্রথম লক্ষ্য ত্রিপুরা হলেও সম্প্রতি পুরভোটে ত্রিপুরায় খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি তৃণমূল দল। এরই মাঝে বুধবার অসমে পৌঁছে আগামী লোকসভা ভোটের জন্য দলের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন কর্মীদের উদ্দেশ্যে রাজ্যের প্রতিটি প্রান্তে নিজেদের বুথ গড়ে তোলার বার্তা দেন অভিষেক। গুয়াহাটিতে পৌঁছে এদিন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বলেন, “আমরা পশ্চিমবঙ্গে যেভাবে বিজেপিকে পরাস্ত করেছি, তা অত্যন্ত গর্বের। আগামী দেড় বছরের মধ্যে আমরা ত্রিপুরা এবং মেঘালয়তে আমাদের সরকার গঠন করবো আর আজ আপনাদেরকে আমি বলে যাচ্ছি যে, অসমেও বিজেপির সঙ্গে আমরা কড়া টক্কর দেবো। আপনারা শুধু লড়াই চালিয়ে যান।”

সম্প্রতি অসমের কংগ্রেস নেতা রিপুণ ভোরা কংগ্রেস দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেছেন। তাঁকে দায়িত্ব দেওয়ার পাশাপাশি এদিন কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে আসা সুস্মিতা দেবকেও রাজ্যের সংগঠন তৈরির দায়িত্ব দিলেন অভিষেক। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তৃণমূল নেতা। তিনি বলেন, “একসময় আমরা সকলেই কংগ্রেস করতাম। কিন্তু বর্তমান রাজনীতিতে কংগ্রেস দল ক্রমশই তাদের বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে। আমরা চাই দেশের সকল দলগুলি একসঙ্গে থাকুক। কিন্তু যেভাবে বছরের পর বছর কেন্দ্রে বিজেপির কাছে কংগ্রেস দল পরাজিত হয়ে চলেছে, সেটি খুবই দুর্ভাগ্যের! ওরা কেবল বড় বড় ভাষণ দেয়, সেই কারণে আমাদের তৃণমূল দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।”

তৃণমূল দলের কর্মীদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য এদিন অভিষেক ত্রিপুরা প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, “ত্রিপুরার ভোটের কিছুদিন পূর্বে লড়াই শুরু করলেও আমরা প্রায় 24 শতাংশ ভোট পেতে সক্ষম হই। সেখানে অসমে ভোটের পূর্বে আমরা অনেকদিন পাবো, ফলে এখানে আরো ভালো ফলের আশা করাই যায়। আগামী লোকসভায় অসম থেকে আমাদের কম করে 10 টি আসন পাওয়ার লক্ষ্য থাকবে। এখানকার মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি মন্তব্য করেছিলেন যে, বিরোধী দলগুলি নাকি তার কথায় ওঠে আর বসে! কিন্তু আপনারা ধীরে ধীরে তৃণমূল দলকে আরও বড় করে তুলুন। আমি মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে চাই যে, অসমে অন্যান্য বিরোধী দলের সঙ্গে আপনি তৃণমূল দলকে একই আসনে ফেলবেন না। আমরা সবার থেকে আলাদা।”

এছাড়াও এদিন দেশে বর্তমান অর্থনৈতিক সংকট এবং পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে মুখ খুললেন অভিষেক। তিনি বলেন, “দেশে যেভাবে রান্নার গ্যাস এবং পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি হয়ে চলেছে, তা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। রাজ্যে চিকিৎসা ব্যবস্থা খুবই দুর্বল এবং এখানে মানুষ কাজও পাচ্ছেন না। উল্টে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসে এনআরসি নিয়ে অসমবাসীকে ভুল বুঝিয়ে চলেছেন। আসলে তারা এখানকার মানুষকে ফাঁকা প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলেছে; আমাদের বিজেপির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতেই হবে।”

Related Articles