টাইমলাইনবাংলাদেশ

বাংলাদেশঃ গুজবের জেরে জ্বালিয়ে দেওয়া হল হিন্দুদের বাড়ি ঘর

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ফ্রান্সের বিক্ষোভের আঁচ এবার বাংলাদেশের (Bangladesh) কুমিল্লায়। ফেসবুক স্ট্যাটাস দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঘটে গেল ভয়াবহ অগ্নিযংযোগ। উপজেলার পুর্বধইর পুর্ব ইউপির কোরবানপুর গ্রামের এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল গোটা এলাকায়।

ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায়
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফ্রান্সে প্রদর্শিত নবী হজরত মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্রকে সমর্থন করে কোরবানপুর গ্রামের শিক্ষক শংকর দেবনাথ এবং আন্দিকুট গ্রামের অনিক ভৌমিক ফেসবুকে মন্তব্য করার অভিযোগ ওঠে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার রাতে এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতেই বিক্ষোভ প্রদর্শিত হতে থাকে।

করা হয় অগ্নিসংযোগ
পুলিশের কানে খবর গেলে, পুলিশ মোবাইল ট্র্যাকিং-এর মাধ্যমে ওই দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু এই ঘটানকে কেন্দ্র করে রবিবার সকালে উত্তেজিত জনগণ কুমিল্লার (Comilla) পুর্বধইর পশ্চিম ইউপির চেয়ারম্যান বন কুমার শিবসহ বেশ কয়েকটি হিন্দু বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে অগ্নি সংযোগ করে দেয়।

ঘটনার খবর পেয়ে তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর ও পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত দুজন
ঘটনায় বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানিয়েছেন, স্থানীয়দের অভিযোগ মত শংকর দেবনাথ এবং আনন্দ ভৌমিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বর্তমানে তারা কারাগারে রয়েছেন। তবে এই আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ঘটনা একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল। এই ঘটনার ভিডিও আছে। সেটা দেখেই অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে আবার কোরবানপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল খায়ের জানিয়েছেন, এলাকার একটি কিন্ডারগার্টেনের প্রধান শিক্ষক হলেন শংকর দেবনাথ। তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে নবীর ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে পোস্ট করা এবং ব্যঙ্গচিত্রকে সমর্থন করে মন্তব্য করার ঘটনায় জনগণ উত্তেজিত হয়ে ওঠে।

Back to top button