টাইমলাইনবিনোদন

‘আমি খুবই হতাশ’, কণ্ঠস্বর হারানোর খবর নিয়ে মুখ খুললেন বাপ্পি লাহিড়ী

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কণ্ঠস্বর হারিয়েছেন বর্ষীয়ান সুরকার বাপ্পি লাহিড়ী (bappi lahiri)। সম্প্রতি এমনি খবরে তোলপাড় হয়েছিল বলিউড ইন্ডাস্ট্রি। করোনা সংক্রামিত হওয়ার পর থেকেই নাকি তাঁর গলার স্বর হারিয়ে গিয়েছে। গান গাওয়া তো দূর, কথা বলারও ক্ষমতা নেই তাঁর। গুঞ্জন তীব্র হতেই অবশেষে মুখ খুললেন সুরকার।

নিজের অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম হ‍্যান্ডেলে একটি বিবৃতি দিয়ে তিনি জানান, এ খবর সম্পূর্ণ ভুয়ো। ‘আমি খুবই হতাশ এটা দেখে যে কিছু সংবাদ মাধ‍্যম আমার স্বাস্থ‍্য নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে। আমার অনুরাগী ও শুভাকাঙ্খীদের আশীর্বাদে আমি ভাল আছি’, বিবৃতিতে এমনটাই লেখেন বাপ্পি লাহিড়ী।


শোনা গিয়েছিল, গত পাঁচ মাস ধরে কথা বলা বন্ধ হয়েছে সুরকারের। ছেলে বাপ্পা লাহিড়ী সংবাদ মাধ‍্যমকে জানিয়েছিলেন, ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছেন সুরকার। তবে শরীর এখনো খুবই দুর্বল। আসলে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর ফুসফুসে সংক্রমণ হয় বাপ্পি লাহিড়ীর। তার জেরেই সুস্থ হতে এত সময় লাগছে তাঁর।

তবে বাবার কণ্ঠস্বর হারানোর গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছিলেন ছেলে বাপ্পাও। তাঁর কথায়, “যেটা রটেছে সেটা একদমই ঠিক নয়। আসলে চিকিৎসকের পরামর্শেই কথা বলা বন্ধ করেছেন বাবা। আশা করা যাচ্ছে দূর্গাপুজোর আগেই সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে যাবেন বাবা। পুজোর সময় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে একটি গানের রেকর্ডিংও করার আছে বাবার।”

 

মার্চ মাসের শেষে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী। মুম্বই এর ব্রিচ ক‍্যান্ডি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। বর্ষীয়ান সুরকারের মেয়ে তথা গায়িকা রেমা লাহিড়ি বনসল সংবাদ মাধ‍্যমকে জানিয়েছিলেন, করোনার হালকা উপসর্গ থাকায় আগেভাগে সাবধানতা অবলম্বনের জন‍্যই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। গায়কের বয়সের কথা মাথায় রেখেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

বাবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর পেতেই লস অ্যাঞ্জেলস থেকে উড়ে এসেছিলেন ছেলে বাপ্পা। তারপর আর ফেরত যাননি। বাবার দেখভাল করতে থেকে গিয়েছেন এখানেই। বাপ্পি লাহিড়ী বাড়ি ফেরার পর তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই। কিন্তু তাঁদের সঙ্গেও নাকি কথা বলেননি সুরকার। এরপর থেকেই তাঁর কণ্ঠস্বর হারানোর গুঞ্জন ওঠে।

Related Articles

Back to top button