বঙ্গহোম পেজ

কেশপুর তৃনমূলের শেষপুর – সায়ন্তন বসু,ভারতী ঘোষ

BanglaHunt,পশ্চিম মেদিনীপুর : কেশপুরকে তৃণমূলের শেষপুর করার জন্য আরো একবার হুমকি দিলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু । মঙ্গলবার দুপুরে বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ কে সঙ্গে নিয়ে কেশপুরের বিভিন্ন এলাকায় মিছিল করেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন কেশপুরের বিজেপি নেতা তন্ময় সাহা এবং হাজার খানেক বিজেপি কর্মী সমর্থক ।

এদিন আরো একবার সায়ন্তন বসু পুলিশ ও তৃণমূল নেতাদের হুমকি দেন। তাঁকে বলতে শোনা যায় , এই কেশপুর হবে তৃণমূলের শেষপুর। কেশপুরের মানুষ তৃণমূলের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। মানুষের মন আর তৃণমূলের দিকে আসবে না। হাজার হাজার মানুষ তাই আজ বিজেপি মুখী হয়েছেন। সিপিএম কেশপুরের মানুষের ওপর যে অন্যায় অত্যাচার চালিয়েছেন তৃণমূলের অত্যাচার একে ছাপিয়ে গেছে। এই কেশপুর একদিন ছিল বামেদের লালদুর্গ । আজ আর এখানে বামফ্রন্টের কাউকে দেখতে পাওয়া যায় না। তারা নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। একইবভাবে তৃণমূল ও নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে।
সায়ন্তন বসু জানান, রাজনৈতিক ক্ষমতা বদলের আগেই কেশপুরের মানুষের ক্ষমতা বিজেপির সঙ্গে রয়েছে। এখানে পালা বদল শুধু সময়ের অপেক্ষা।
ঘাটাল লোকসভা নির্বাচনে কেশপুর ছিল তৃণমূলের পাশে। এর উপর ভরসা রেখেই জয়ী হন তৃণমূলের দেব ওরফে দীপক অধিকারী। কেশপুর ৯৬ হাজার ভোটে লিড দেয় দেবকে।

এদিন মিছিলের প্রথম সারিতে থাকা ভারতী ঘোষ জানান, এখানে মানুষকে ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। মানুষ রাগে ফুঁসছিলেন। তাঁরা কেশপুরের এই দমবন্ধ করা পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছেন। তাই এদিনের মিছিলে স্বতস্ফূর্ত হয়ে হাজার হাজার মানুষ মিছিলে পা মিলিয়েছেন । যদি কেশপুরের মানুষ দেব কে মেনে নিতেন তবে এত সংখ্যায় এদিনের মিছিলে সামিল হতেন না ।

পুলিস আর তৃণমূলের গুন্ডারা কেশপুর কে কব্জা করে রাখতে চাইছে। তা আর হবে না । মানুষ বেরিয়ে এসেছেন । তাই কেশপুর থেকে পিছু হঠতে হবে তৃণমূল কে।

Leave a Reply

Close
Close