টাইমলাইনভারতরাজনীতি

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা বিপ্লব দেবের! কে হতে চলেছেন নতুন মুখ্যমন্ত্রী?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ত্রিপুরার রাজনীতিতে কি ঘটতে চলেছে বড়সড় রদবদল? সেই আশঙ্কা প্রকাশ করে এদিন মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন বিপ্লব দেব। বেশ কিছুদিন ধরেই এই জল্পনা চলছিল গোটা রাজ্যে আর সেই জল্পনাকেই শিলমোহর দিয়ে এদিন রাজ্যপাল এস এন আর্য্যর কাছে ইস্তফা পত্র জমা দিয়ে আসেন বিপ্লব দেব। এখন প্রশ্ন হল, বিপ্লবের পদত্যাগের পর ত্রিপুরার নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কে মুখ হতে চলেছেন?

সূত্রের খবর, এই খবর সামনে আসতেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব আগরতলায় গিয়ে পৌঁছেছেন এবং তাঁর উপস্থিতিতে বিজেপির পরিষদীয় দলের বৈঠকে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী প্রসঙ্গে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। সামনেই ত্রিপুরার বিধানসভা ভোট আর তার পূর্বে বিপ্লব দেবকে নিয়ে দলের মধ্যে বেশ কিছু সমস্যারও সৃষ্টি হয়! এর মাঝেই গতকাল দিল্লি সফরে উড়ে যান বিপ্লব দেব।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতও হয় তাঁর। এরপরেই আজ ইস্তফা! তবে কি পদত্যাগ প্রসঙ্গে আলোচনা করতেই অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিন? এ বিষয়ে অবশ্য এখনো পর্যন্ত কোনো সদুত্তর মেলেনি। এদিন বিপ্লব দেব জানান, “আমার কাছে সবসময় বিজেপি দল সবচেয়ে উপরে স্থান গ্রহণ করে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ত্রিপুরায় আমি দলের জন্য সর্বদা কাজ করেছি। ত্রিপুরার দায়িত্ববান মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে জনসাধারণের জন্য ন্যায় বিচারের চেষ্টা করেছি প্রতিনিয়ত। রাজ্যে কিভাবে শান্তি বজায় রাখা যায় এবং সাধারণ মানুষের উন্নতি সাধন করা যায়, সেই লক্ষ্যে নিজেকে নিয়োজিত করেছি। এখন দলীয় সংগঠনকে আরো দৃঢ় করতে হবে।” এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী কিংবা অন্যান্য যে কোন পদে তিনি যে সর্বত্রই তার সেরা দিয়ে গেছেন, সেই প্রসঙ্গে নিজের মত প্রকাশ করেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব।

এখন প্রশ্ন উঠতে বাধ্য যে, সামনে যখন বিধানসভা নির্বাচন, তার আগে বিপ্লব দেবের এই সিদ্ধান্ত দলকে কি দুর্বল করে দেবে? সেই প্রশ্নের উত্তর ভবিষ্যতে পাওয়া যাবে। তবে তাঁর আচমকা এই ইস্তফার পেছনে দলীয় কোন্দলক্যা তুলে ধরেছে বিরোধীরা। তাদের মতে, বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে দলের অন্দরেই বহু অভিযোগ ওঠে, যা নিয়ে কেন্দ্রীয় স্তরেও তাঁর উপর থেকে বিশ্বাস ধীরে ধীরে উঠতে শুরু করে। এছাড়াও রাজ্যবাসীর মধ্যেও মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে ক্রমশ বিরোধ দেখা দিতে থাকে। সেই কারণেই বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে বিজেপি দলের লক্ষ্য ছিলো মুখ্যমন্ত্রী পদে নতুন কোন মুখে আনা আর তাদের সেই প্ল্যান সফল করতেই এদিন আচমকা ইস্তফা দিতে বাধ্য হলেন বিপ্লব দেব।

সূত্রের খবর, ত্রিপুরার নতুন মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন জিষ্ণু দেববর্মা, যিনি আবার এই মুহূর্তে রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী পদে নিযুক্ত রয়েছেন।

Related Articles

Back to top button