টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মন্ত্রিত্ব পেতেই খোঁচা, বাবুল সুপ্রিয়কে পচা আলুর সঙ্গে তুলনা জিতেন্দ্র তিওয়ারির

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দীর্ঘ এক বছরের যাত্রাপথ আর সেই লড়াই শেষেই বাংলায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেয়েছেন একদা বিজেপির (BJP) পোস্টার বয় তথা বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেসের (Trinamool Congress) হয়ে বালিগঞ্জ (Ballygunge) বিধানসভা কেন্দ্রে জয়ী বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। রাজ্য মন্ত্রিসভায় পূর্ণ মন্ত্রী হওয়ার পরেই বাংলার পর্যটন এবং তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয় বাবুলের হাতে। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে আপ্লুত বাবুল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং অভিষেককে নিজের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আর এর মাঝে এবার নাম না করে বাবুল সুপ্রিয় এবং নিজের পুরনো দল ‘তৃণমূল কংগ্রেস’-কে কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারি (Jitendra Tiwari)।

বিজেপি নেতা একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে লেখেন, “একটি বস্তা থেকে কয়েকটি পচা আলু ফেলে দিয়ে অন্যের ফেলে দেওয়া পচা আলু নিজেদের বস্তায় ভরে নেওয়া আজ প্রথম দেখলাম।” ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ‘পচা আলু’ বলতে এখানে বাবুল সুপ্রিয়কেই বোঝাতে চেয়েছেন জিতেন্দ্র।

উল্লেখ্য, বাবুলের সাফল্যে জিতেন্দ্র তিওয়ারির এই কটাক্ষ অবশ্য নতুন নয়। তাদের মধ্যেকার পারস্পরিক সম্পর্ক জানতে হলে কিছুটা অতীতে ফিরে যেতে হবে। আজ থেকে বেশ কয়েক বছর অতীতে আসানসোলে বিজেপির হয়ে লড়াই করে সাংসদ পদে জয়লাভ করেন বাবুল সুপ্রিয়। সেই সময় আসানসোলের মেয়র ছিলেন জিতেন্দ্র। স্বাভাবিকভাবেই, উক্ত সময়ে বিজেপি-তৃণমূল তরজা (বাবুল সুপ্রিয়-জিতেন্দ্র তিওয়ারি) মাঝে সর্বদা উত্তপ্ত হয়ে থাকত আসানসোলের রাজনীতি। তবে পরবর্তী সমযয়ে বদলায় রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট।

গত বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে জিতেন্দ্র তিওয়ারি ঘাসফুল শিবির ছেড়ে যোগ দেন বিজেপিতে এবং এক মুহূর্তেই পারস্পরিক তিক্ততা বদলে যায় ‘দাদাভাই’ সম্পর্কে। এমনকি বাবুলের বিজেপি ছেড়ে দেওয়ার জল্পনা মাঝে জিতেন্দ্র লেখেন, “আসানসোলের মানুষ বাবুল সুপ্রিয়কে ভালোবাসে। তাই জনগণকে ছেড়ে কখনোই ও অন্য কোথাও যেতে পারবে না। ও সর্বদাই দলে থাকবে।” তবে পরবর্তীতে সেই সম্পর্ক বিগড়াতে নেয়নি বেশি সময়! পদ্মফুল শিবির ছেড়ে শাসক দলে যোগ দেওয়ার পরেই একের পর এক আক্রমণ শানাতে থাকেন বিজেপি নেতা।

সেই সময় তিনি বলেন, “আসানসোলে কখনোই নিজের নামের প্রতি সুবিচার করে জয় পাননি বাবুল। একমাত্র নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা এবং বাবা রামদেবের সুপারিশের কারণেই লোকসভা কেন্দ্রে জেতেন উনি আর বর্তমানে বাবুল সুপ্রিয়কে ‘পচা আলু’-র সঙ্গে তুলনা করে বিজেপি নেতা বিতর্ক আরো বহু গুণ বাড়ালেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button