টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ওরা শুরু করেছে, আমরা শেষ করবো, তৃণমূলকে হুমকি শান্তনু ঠাকুরের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি সমেত সমস্ত বিরোধী দলগুলো। ইতিমধ্যে বাংলায় রাজনৈতিক হিংসার মামলা গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়ার অভিযোগ তুলে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করার দাবি তুলেছে একটি NGO। এছাড়াও জাতীয় মানবাধিকার কমিশন (NHRC) পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন-পরবর্তী হিংসার তদন্তের জন্য একটি টিম গঠনের নির্দেশ দিয়েছে।

রাজ্যে চলা হিংসা নিয়ে মঙ্গলবার সকালে সরব হতে দেখা যায় বনগাঁর বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুরকে। তিনি ফেসবুকে লাইভে এসে তৃণমূল এবং রাজ্যের প্রশাসনের উপর ক্ষোভ উগরে দেন। তিনি বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের এই বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে এক হয়ে পথে নামারও আহ্বান করেন। শান্তনু ঠাকুর এও বলেন যে, আমরা বনগাঁতে জিতেছি তবুও আমাদের কর্মী সমর্থকদের উপর এক শ্রেণীর মানুষ অত্যাচার চালাচ্ছে।

শান্তনু ঠাকুর এই ঘটনার জন্য একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে অভিযুক্ত করেছেন। তিনি বলেছেন বেছে বেছে হিন্দুদের বাড়িতে লুটপাট চালানো হচ্ছে, অত্যাচার চালানো হচ্ছে। শান্তনু ঠাকুর এও বলেন যে, অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে রাজ্যের চারিদিকে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়তে পারে। তিনি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা সহ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথের দিনে দেশজুড়ে ধরনা দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন।

এরপর শান্তনু ঠাকুর রাস্তায় নেমে আক্রান্তদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান। সেখানে তিনি দলীয় কর্মী-সমর্থকদের মনোবল বাড়ানোরও কাজ করেন। শান্তনু ঠাকুর আক্রান্তদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গিয়ে বলেন, ‘আমি এবার চলে এসেছি, কোথায় কোথায় ভাঙচুর হয়েছে সেটা আমি নিজেই দেখব।” এরপর ওনাকে এক দলীয় কর্মী বলেন, আমরা তো এলাকায় ঢুকতেই পারছি না। এরপর শান্তনু ঠাকুর বলেন, ‘ওরা শুরু করেছে, আমরা শেষ করব।”

Back to top button