টাইমলাইনবিনোদন

সবাই ‘নেপোটিজমের প্রোডাক্ট’ নয়, ধর্মেন্দ্রর ছেলে হয়েও কাজ পেতেন না! বিষ্ফোরক ববি দেওল

বাংলাহান্ট ডেস্ক: পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। কথাটা ববি দেওলের (Bobby Deol) ক্ষেত্রে অক্ষরে অক্ষরে সত‍্যি। বিগত কয়েক বছরে চমকে দেওয়ার মতো বদল হয়েছে তাঁর। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে যেন আরো হ‍্যান্ডসম হয়েছেন তিনি। ক্ষুরধার হয়েছে অভিনয়ও। বড়পর্দা থেকে ডিজিটাল প্ল‍্যাটফর্মে পা রাখতেই কেল্লাফতে। একের পর এক ওয়েব সিরিজে অভিনয় করছেন তিনি।

আগামীতে ‘লভ হস্টেল’ সিরিজে একটি খল চরিত্রে দেখা যাবে ববিকে। উচ্ছ্বসিত অভিনেতা জানান, এমন একটি চরিত্র আগে হলে পেতেন না তিনি। তাঁর কথায়, “একজন অভিনেতা হিসাবে, আমি বিভিন্ন ধরনের চরিত্র করার চেষ্টা করি। সেগুলোর জন‍্য ববি আগে কখনো প্রস্তাবই পেত না।”

ববি বলেন, কোনো অভিনেতাই কখনো মাঝারি ধরনের কোনো কাজ করতে চান না। কিন্তু তাদের যা প্রস্তাব দেওয়া হয় তার মধ‍্যে থেকেই বেছে নিতে হয়। অভিনেতার কথায়, “সুযোগ অত সহজে আসে না। তাই যেটুকু পাওয়া যায় তাতেই খুশি থাকতে হয়। আমি ভাগ‍্যবান যে আমি কাজ করতে পারছি, প্রশংসিতও হচ্ছি। এর আগে কখনো কোনো পুরস্কারের জন‍্য মনোনীত হইনি আমি।”

অথচ বলিউডের সুপারস্টার ধর্মেন্দ্র ছেলে তিনি। দাদা সানি দেওলও ইন্ডাস্ট্রির নামী অভিনেতা। কিন্তু কেউ মুখের সামনে চামচ ধরে দেয়নি তাঁর। কঠোর পরিশ্রম করে তারপরেই ভাল ছবির প্রস্তাব পেতেন তিনি। এখনো পর্যন্ত নিজের প্রতিভার প্রমাণ দিতে পরিশ্রম করতে হয় তাঁকে। তবে ধর্মেন্দ্রর ছেলে ও সানির ভাই হওয়ায় নিজেকে ধন‍্য মনে করেন তিনি।

ববি বলেন, আর পাঁচটা বাড়ির মতোই তাঁর বাড়ির পরিবেশ। তিনিও বাবা দাদার সঙ্গে মজা করেন। গল্প করেন। তবে কাজের কথা বাড়িতে একেবারেই আলোচনা করেন না তাঁরা। অভিজ্ঞ অভিনেতা হিসাবে ছেলেকে একটাই পরামর্শ দিয়েছেন ধর্মেন্দ্র। কখনো হাল না ছাড়ার ও সবসময় ইতিবাচক থাকার।

Related Articles