টাইমলাইনভারত

গোহত্যা নিয়ে রণক্ষেত্র ত্রিপুরা, বাধা দেওয়ায় BSF-র সঙ্গে খন্ডযুদ্ধ গ্রামবাসীদের! আহত চার

বাংলাহান্ট ডেস্ক: গোমাংসকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র ত্রিপুরার সোনামুড়া। বিএসএফ এবং গ্রামবাসীদের মধ্যে খন্ডযুদ্ধে গুরুতর আহত অন্তত ৪। ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকা। যার জেরে রবিবার রাত থেকেই জাতীয় সড়ক অবরোধ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এলাকায় শৃঙ্খলা ফেরাতে এবং আরও বড় সংঘর্ষ এড়াতে মোতায়েন রয়েছে পুলিশের বিরাট বাহিনী।

রবিবার সকালে একটি অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে একটি স্থানে গোমাংস কাটছিলেন মোতিনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের তিন নম্বর ওয়ার্ডের ফকিরাদোলা এলাকায় গ্রামবাসীরা। এই খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছান ইউএনসি নগর বিএসএফের জওয়ানরা। তাঁরা গ্রামবাসীদের বাধা দিলে রণক্ষেত্রের আকার ধারণ করে পরিস্থিতি। গ্রামবাসীদের উপর লাঠিচার্জ করেন জওয়ানরা। এরপর গ্রামবাসীরা মিলে জওয়ানদের তাড়া করে মারধর করেন। যার ফলে গুরুতর আহত হন এক জওয়ান। এই খন্ডযুদ্ধে আহত হন এক মহিলা সহ চার গ্রামবাসীও। সোনামুড়া হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে আহতদের।

পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে থাকে বিকেলের পর থেকে।ঘটনার প্রতিবাদে লাঠিসোঁটা হাতে রাস্তায় নামেন গ্রামবাসীরা। অবরোধ করা হয় সোনামুড়া এবং বক্সনগর জাতীয় সড়ক। ঘেরাও করে রাখা হয় বিওপি চত্ত্বরও। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় সোনামুড়া থানার পুলিশ। কিন্তু অবস্থানে অনড় গ্রামবাসীরা। কোনোভাবেই সেখান থেকে তাঁদের সরাতে পারেনি পুলিশ। মহকুমা শাসক এসে পুরো ঘটনার বিচার না করা অবধি তাঁরা অবস্থান থেকে নড়বেন না বলেই সাফ জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝে রাতে ঘটনাস্থলে আসেন বিএসএফের উচ্চপদস্থ আধিকারিকেরা। এর পরবর্তী অশান্তি এড়াতে পুরো এলাকায় মোতায়েন বিরাট পুলিশ বাহিনী। তবে এই ঘটনার প্রতিবাদে তাঁরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামতে চলেছেন ,স্পষ্টতই এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

Related Articles

Back to top button