টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

নবান্ন অভিযান করতে পারবে না কোনো দল! আবেদন আসতেই বড়সড় রায়দান কলকাতা হাইকোর্টের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ‘ভবিষ্যতে রাজনৈতিক কর্মসূচি করতে পারবে না কোনো বিরোধী দল! একইসঙ্গে সম্প্রতি বিজেপির (Bharatiya Janata Party) নবান্ন অভিযানে সরকারি সম্পত্তির যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, তার দরুণ সকল ক্ষতিপূরণ দিতে হবে তাদের’, এই সকল বিষয়গুলি নিয়েই সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকার। যদিও সেই সকল মামলাগুলি এদিন পত্রপাঠ খারিজ করে দিল আদালত।

সম্প্রতি, বিজেপির ‘নবান্ন অভিযান’ ঘিরে বিশৃঙ্খলার ছবি ধরা পড়ে বাংলার একাধিক প্রান্তে। কোথাও বিজেপি কর্মী সমর্থকদের হাতে মারধর খান তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান, তো অপরদিকে আবার বহু স্থানে বিজেপি সমর্থকদের আটক করে পুলিশ। পরবর্তীতে নবান্ন যাওয়ার পথে শুভেন্দু অধিকারী থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায়দেরও আটক করা হয়।

এখানেই শেষ নয়, মিছিলের শেষ দিকে পুলিশকে মারধর করার পাশাপাশি তাদের গাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে, যা নিয়ে ধুন্ধুমার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় গোটা বাংলা জুড়ে। সেই বিষয়টিকে উল্লেখ করেই কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়; যে মামলাটি এদিন খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ।

কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলার শুনানি চলাকালীন এদিন আইনজীবী রমা প্রসাদ সরকার বলেন, “বিজেপির নবান্ন অভিযানের দরুণ সাধারণ মানুষ একের পর এক দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন। শুধু তাই নয়, একইসঙ্গে সরকারি সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বন্ধ থেকেছে বাজার এবং হাট।” পরবর্তীতে সরকারি সম্পত্তি ক্ষয়ক্ষতি করার জন্য তার দরুণ ক্ষতিপূরণ দাবি করার পাশাপাশি এই সকল রাজনৈতিক কর্মসূচি যাতে পরবর্তী সময়ে বাতিল করা যায়(নবান্ন অভিযান করতে পারবে না কোনো দল), সেই প্রসঙ্গেও আবেদন জানান তিনি।

তবে অবশেষে এক প্রকার খালি হাতে ফিরতে হলো রমাপ্রসাদ সরকারকে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিজেপির ‘নবান্ন অভিযান’ ঘিরে একের পর এক বিতর্কের সৃষ্টি হয়। একদিকে বিজেপির বিরুদ্ধে হিংসার অভিযোগ আনে তৃণমূল কংগ্রেস, আবার অপরদিকে শাসকদল ও তাদের পুলিশের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ প্রকাশ্যে নিয়ে আসে বিজেপি। সেই সূত্রেই এদিন কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলাটির দিকে নজর ছিল সকলের। অবশ্য আদালতের রায়ের মাধ্যমে এদিন বিজেপি যে বড়সড় স্বস্তি পেলো, তা বলা বাহুল্য।

Related Articles