টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

হাইকোর্ট থেকে বড়সড় স্বস্তির খবর শুভেন্দুর জন্য, মুখ পুড়ল পুলিশের! প্রশাসনকে ভর্ৎসনা আদালতের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ একদিকে দেশ জুড়ে আজ বয়ে গেছে গুজরাট ভোটের ঝড়। পূর্বের সমস্ত রেকর্ড ভেঙে গুড়িয়ে দিয়ে বিপুল ভোট জয়লাভ করেছে গেরুয়া শিবির। খুশির জোয়ার সমস্ত দেশের বিজেপি শিবিরে। অন্যদিকে এই একই দিনে বঙ্গের বিজেপি দলের জন্য বড় স্বস্তির খবর শোনালো কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। রীতিমতো হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন বিরোধী দলনেতা।

একই দিনে জোড়া খুশির খবরে আত্মাহারা বঙ্গ বিজেপি। হাই কোর্টের নির্দেশে বড় স্বস্তি পেলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা সমস্ত এফআইআরে (FIR) স্থগিতাদেশ দিল হাই কোর্ট। বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থার তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সমস্ত এফআইআরের বিরুদ্ধে এজলাসে বসে অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ জারি করলেন।

রাজ্য পুলিশ বিরোধী দলনেতার বিরুদ্ধে একাধিক এফআইআর দায়ের করেছে, এই নিয়েই কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন শুভেন্দু। সূত্র মাফিক ২৬ মাসে তার বিরুদ্ধে ২৬টি এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। এদিন সেই মামলারই রায় দিলেন বিচারপতি। মামলার শুনানিতে রাজ্য পুলিশকে ভর্ৎসনা করে বিচারপতি বলেন, “পুলিশ স্বেচ্ছায় অথবা কারওর নির্দেশে একজনের বিরুদ্ধে এফআইআরের বিরুদ্ধে বন্যা বইয়ে দিচ্ছে।”

বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ ছিল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের প্রতিহিংসার কারণে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে একগুচ্ছ এফআইআর। এদিন আদালতে বিচারপতি বলেন, পুলিশ রাজ্যের বিরোধী দলনেতার গতিপ্রকৃতি আটকাতে রাজ্যের হয়েই কাজ করছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

suvendu adhikari 2

এরপরেই বিরোধী দলনেতার জন্য স্বস্তির শুনানি দিলেন বিচারপতি। শাসক দলের সমস্ত অভিযোগ কার্যত উড়িয়ে দিলেন বিচারপতি। পাশাপাশি তিনি এও নির্দেশ দেন, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে ভবিষ্যতে নতুন কোনও এফআইআর করতে গেলে হাইকোর্টের অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক।

Related Articles