টাইমলাইনভারত

বড় বিপাকে মুখ্যমন্ত্রী! নির্বাচনের মধ্যেই ওনার বিরুদ্ধে ভিন রাজ্যে দায়ের হল গুরুতর মামলা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পশ্চিমবঙ্গে দ্বিতীয় দফার নির্বাচন চলছে। আর এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিহারে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিহারীদের অপমান করার অভিযোগ উঠেছে। নন্দীগ্রামে নির্বাচনী জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিহার আর উত্তর প্রদেশের মানুষকে গুন্ডা বলে সম্বোধন করেছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মুজফরপুরের সিজিএম আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলার শুনানি আগামী ৮ এপ্রিল।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আইপিসির ধারা 147, 148, 295, 295a আর 511 অন্তর্গত মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিতর্কিত বয়ানের ফলে বিহার আর উত্তর প্রদেশের মানুষের ভাবাবেগে আঘাত লেগেছে। সমাজসেবী তমন্না হাসমি আদালতের কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদন করা হয়েছে। অভিযোগকারী জানিয়েছেন যে, ওনার এই বিতর্কিত বয়ান বাংলা-বিহার আর উত্তর প্রদেশের মানুষদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টিকারী।

Mamata

তমন্না হাসমির আইনজীবী সুরজ কুমার বলেন, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে জনতার মধ্যে বৈষম্য সৃষ্টি করা আইনত অপরাধ। আশাকরি আদালত এর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের নির্বাচনী জনসভায় উত্তর প্রদেশ আর বিহারের মানুষের অপমান করেছেন। মেদিনীপুরের একটি র‍্যালিতে তিনি বিহার আর উত্তর প্রদেশের মানুষকে গুন্ডা বলে বোঝাতে চেয়েছেন।” এছাড়াও সুধীর কুমার ওঝা নামের এক আইনজীবীও একই অভিযোগ নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন।

বলে রাখি, একুশের নির্বাচনের বৈতরণী পার করতে বাংলায় বহিরাগত কার্ড খেলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির তামাম কেন্দ্রীয় নেতাদের তিনি বহিরাগত গুন্ডা বলে আখ্যা দিয়েছেন। এমনকি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ আর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও তিনি বহিরাগত বলে বরাবর আক্রমণ করে এসেছেন। বিজেপিকে আক্রমণ করতে গিয়ে তিনি বারবারই বলেছেন যে, বিজেপি ইউপি-বিহার থেকে গুন্ডা এনে বাংলায় অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। আর এবার ওনার এই বয়ানের বিরুদ্ধে আদালতে গেলেন বিহারের তমন্না হাসমি।

Back to top button