টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারতরাজনীতি

জাল ভ্যাকসিন কান্ডে রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব কেন্দ্রের, সময় মাত্র ৪৮ ঘন্টা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এই মুহূর্তে জাল ভ্যাকসিন কাণ্ড নিয়ে রীতিমতো সরগরম রাজ্য রাজনীতি। দেবাঞ্জন দেবের (Debanjan Deb) ভ্যাকসিন ক্যাম্প থেকে জাল টিকা গ্রহণ করা মানুষজন একদিকে যেমন বিপদে পড়েছেন, তেমনি অন্যদিকে যথেষ্ট অস্বস্তিতে রাজ্য প্রশাসনও। প্রশাসনের চোখে ধুলো দিয়ে কিভাবে এই ঘটনা ঘটল দিনের পর দিন, তা নিয়ে উঠেছে একাধিক প্রশ্ন। তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি জানিয়েছেন, জাল ভ্যাকসিন কাণ্ডে যুক্ত কাউকেই রেয়াত করা হবে না। ইতিমধ্যেই এ বিষয়ে তদন্তের জন্য সিটকে (CIT) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সাথে সাথে গত ২৬ জুন কেন্দ্রের কাছে সিবিআই তদন্ত চেয়ে আর্জি জানিয়ে ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

সেই সূত্র ধরেই আজ রাজ্যের মুখ্যসচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে চিঠি পাঠালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রকে সচিব রাজেশ ভূষণ। চিঠিতে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। জানতে চাওয়া হয়েছে, জাল ভ্যাকসিন কাণ্ডে এখনো পর্যন্ত কি কি ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য সরকার?

সাথে সাথেই রাজ্যকে সচেতন করে কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বারবার রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কো-উইন পোর্টালের মাধ্যমে ভ্যাকসিন শিবির আয়োজন করতে। যাতে যারা টিকা গ্রহণ করছেন প্রত্যেকে এই পোর্টালের পক্ষ থেকে মেসেজ পান এবং তাদের তথ্য সরকারের কাছে নথিভূক্ত থাকে। যদি কো উইন পোর্টালের মাধ্যমে শিবির আয়োজিত না হয়, সে ক্ষেত্রে কেউ কেন্দ্রের মেসেজ পাবেন না। মেসেজ না পেলে ধরে নিতে হবে তিনি জাল ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

শুধু তাই নয় জানা গিয়েছে, জাল ভ্যাকসিন কান্ডে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে ইডিও। জানতে চাওয়া হয়েছে এখনো পর্যন্ত কতগুলি মামলা দায়ের করা হয়েছে? আগামী দিনে ক্ষেত্রে ইডিও যে বড় ভূমিকা গ্রহণ করতে পারে তা কার্যত জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র। এখন জাল ভ্যাকসিন কান্ডের জল কতদূর যায় সে দিকেই নজর থাকবে সকলের।

Related Articles

Back to top button