টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

বঙ্গ বিজেপির এক নেতার ক্ষমতা মেনে নিতে পারছেন না শান্তনু ঠাকুর, উগরে দিলেন ক্ষোভ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বঙ্গ বিজেপির নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে গেরুয়া শিবিরের অস্বস্তি বাড়ালেন মোদী সরকারের প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর। এদিন কলকাতায় বৈঠকের পর তিনি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্তও নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তিনি সংবাদমাধ্যমকে বঙ্গ বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেছেন যে, ‘বঙ্গ বিজেপিতে যারা রয়েছেন, তাঁদের মনে হয় আমাদের কোনও দরকার নেই। আর এই কারণেই আমরা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছি।” তবে তিনি এও পরিস্কার করে দেন যে, তিনি কেন্দ্রের উপর ক্ষুব্ধ নন। ওনার ক্ষোভ শুধু বঙ্গ বিজেপির উপরেই।

কলকাতার পোর্ট ট্রাস্টের গেস্টহাউসে বৈঠকের পর শান্তনু ঠাকুর বলেন, কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে ভুল বার্তা দিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৯০ শতাংশকে বাদ রেখে কীভাবে কমিটি গঠন হল? একজন ব্যক্তি গোটা দলকে নিজের হাতে রাখতে চাইছেন। একজন নেতা সংগঠনের পক্ষে ক্ষতিকর। সমস্ত অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের কমিটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। একজন নেতার জন্য গোটা দলের ক্ষতি মেনে নেওয়া যায় না।

শান্তনু ঠাকুরের এদিনের বয়ানে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, তিনি বঙ্গ বিজেপির নতুন কমিটি এবং বঙ্গ বিজেপির এক ক্ষমতাশালী নেতার উপর ক্ষুব্ধ। তবে, সেই ক্ষমতাশালী নেতা কে? সেটা তিনি পরিস্কার করেন নি। বলে দিই, এর আগে পাঁচ বিধায়কদের নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর বিজেপির মতুয়া বিধায়ক মকুট মণি অধিকারী কার্যত হুঁশিয়ারির সুরেই বলেছিলেন যে, রাজ্যের সহসভাপতি একজন মতুয়াকে না করা হলে তাঁরা নিজের মতো পদক্ষেপ নিতে বাধ্য থাকবে। আর এদিন শান্তনু ঠাকুরের গলাতেও একই সুর শোনা গেল।

Related Articles

Back to top button