টাইমলাইনবিজ্ঞানআন্তর্জাতিক

২০১৫ থেকেই করোনাকে জৈব অস্ত্র রূপে ব্যাবহারের ছক করছিল চীন, প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সারা বিশ্বজুড়ে রীতিমতো তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস। বাদ পড়েনি আমাদের এই দেশ ভারত বর্ষও৷ রোজই কাতারে কাতারে সংক্রমিত হচ্ছেন মানুষ। রোজই বেড়ে চলেছে মৃত্যু মিছিল। সারা বিশ্বে করোনার আবির্ভাব কাল থেকেই আর সব কিছুর সাথে সাথে প্রশ্ন উঠেছিল চীনের ভূমিকা নিয়েও। পোক্ত প্রমাণ না থাকলেও অনেকেই অভিযোগ তুলেছিলেন ভাইরাসের পিছনে রয়েছে চীনের অভিসন্ধি। যদিও একদিকে যেমন সামনে আসেনি কোন সঠিক নথি, তেমনি চীনও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বারবার। কিন্তু এবার যে নথি প্রকাশ্যে এলো তাতে ফাঁস হয়ে গেল “সার্স করোনা ভাইরাস” নিয়ে চীনের অনেক গোপনীয় পরিকল্পনাই।

২০১৫ সাল থেকেই নাকি করোনা ভাইরাসকে জৈব অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছিলেন চীনের বিজ্ঞানীরা। এবার এই তথ্য ফাঁস করলেন চীনের এক শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানীই। লি-মেন-ইয়াং নামে ওই চীনা ভাইরোলজিস্টের দাবি ঘিরে এখন রীতিমতো তোলপাড় গোটা বিশ্ব। সম্প্রতি চীনা ভাষায় লেখা কিছু নথি ইংরেজিতে অনুবাদ করে টুইট করেছেন তিনি। সেই নথি অনুযায়ী সার্স কোভ ২ ভাইরাসটি তৈরি হয়েছে চীনের সরকারি গবেষণাগারে এবং চীনের সামরিক বিভাগের বিজ্ঞানীরা এটিকে জৈব হাতিয়ার রূপে ব্যবহার করার জন্য আলোচনা চালাচ্ছিলেন দীর্ঘদিন ধরেই। শুধু তাই নয় এই নথিতে উল্লেখ রয়েছে, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ লড়া হবে এই জৈব অস্ত্র দিয়েই।

https://twitter.com/DrLiMengYAN1/status/1390752779229147145?s=19

২০১৫ সালে যখন এই ভাইরাস নিয়ে আলোচনা করছেন চীনের বিজ্ঞানীরা। তখনো সে ভাবে জৈব অস্ত্র ব্যবহার করার কথা ভাবেননি কেউই। প্রায় পাঁচ বছর পর সারা বিশ্বজুড়ে শুরু হল করোনার তান্ডব। অস্ট্রেলিয়ার এক খবরের ওয়েবসাইট দাবি করেছে, ইচ্ছে মত পরিবর্তন করা যেতে পারে এই ভাইরাসের জিন। এর ফলে ভাইরাসটি হয়ে উঠতে পারে আরও মারাত্মক। এই নথি প্রকাশ্যে আসার পর চীনের কোন বিবৃতি অবশ্য এখনও সামনে আসেনি। তবে এ ঘটনা সত্য প্রমাণিত হলে সারা পৃথিবীর পক্ষে তা যে ভীষণ রকম মারাত্মক এ নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।

Related Articles

Back to top button