টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

নেপালের পিঠে ছুরি মারল চীন, বড়োসড়ো আর্থিক ক্ষতির মুখে নেপাল

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ চালবাজ চীন (China) সরকার শি জিনপিং যে নিজের স্বার্থ ছাড়া আর কিছুই বোঝেন না, তা আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। নেপালকে (Nepal) বন্ধু বলে জাহির করেও, পেছন থেকে ছুরি মারার আগে একবারও ভাবল না চীন। নেপাল এবং চীনের মধ্যেকার ট্রেড বিল নিয়ে জিনপিং সরকার বড় ঝটকা দিল কেপি শর্মা অলিকে।

সূত্র মারফত জানা যায়, বছর দুই আগে এই দুই দেশের মধ্যে একটি ট্রেড বিল চুক্তি হয়েছিল। যে চুক্তি অনুসারে, নেপাল থেকে ৫১২ জিনিসের আমদানি করার কথা ছিল চীনের। কিন্তু সময় আসতেই নিজের আসল মূর্তি বের করে চীন সরকার জিনপিং। চীন থেকে নেপালে যে তালিকা পাঠানো হয়, সেখানে ৫১২-এর বদলে কেবলমাত্র ১৮৮ জিনিসের বিষয়ে বলা ছিল।

image 26281 1520762991 Bangla Hunt Bengali News

এই বিষয়ের দ্বারা পরিষ্কার হয়ে যায়, চীন সরকার কিভাবে নেপালকে আর্থিক দিক থেকে ঝটকা দিতে চেয়েছে। নেপালের সংবাদপত্র ‘মাই রিপাবলিকান’ থেকে জানা যায়, নেপালের বিরুদ্ধে চীন দুতরফার আর্থিক রণনীতি প্রয়োগ করছে। ধীরে ধীরে নেপালের অর্থনৈতিক অবস্থা ক্রমশ অবন্নতির দিকে এগোচ্ছে। ভারতের সঙ্গে শত্রুতা করে চীনের হাত ধরে বর্তমানে প্রভূত আর্থিক ক্ষতির মুখে নেপাল সরকার।

swarajya 2020 07 d09b5532 0bea 4827 8c91 7c65d3a6a685 thumb Bangla Hunt Bengali News

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি চীন সফরে গেলে দুই দেশের মধ্যে ট্রেড বিল সংগঠিত হয়েছিল। সেই বৈঠকে ৮০৩০ জিনিস পত্রের আমদানীর ভরসা দিয়েছিল। যার মধ্যে ছিল কাপড়, বাসন, ফুটওয়ার, বিউটি প্রোডাক্টস, টুথব্রাশ, পশুর হাড়ের তৈরি বোতাম, মেডিকেল তেল এবং প্লাস্টিক। কিন্তু নেপাল জানিয়েছে, চীনকে এইসকল জিনিস পত্র আমদানী করার কথা বহুবার বলা হলেও, চীন তা আমদানী করে না।

Back to top button