টাইমলাইনভারতরাজনীতি

হাথরস কাণ্ডে CM যোগী আদিত্যনাথের বড় বয়ান, বললেন রাজ্যে জাতীয় দাঙ্গা করানোর চেষ্টা চলছে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ হাথরস কাণ্ড নিয়ে সমস্ত রাজনৈতিক দল গুলো নিজের মতো করে যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) সরকারের বিরুদ্ধে মোর্চা খুলেছে। আর সেই ক্রমে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নীরবতা ভেঙে বিরোধীদের কড়া জবাব দেন। যোগী আদিত্যনাথ রবিবার বলেন, কিছু মানুষ উন্নয়ন পছন্দ করে না। এরা দেশে আর রাজ্যে জাতীয় স্তরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা উস্কাতে চায়। উনি বলেন, এই দাঙ্গায় উন্নয়ন থমকে দাঁড়াবে আর তাঁরা গরম তাওয়ায় রুটি করার আনন্দ উপভোগ করবে। আর সেই ভেবেই এরা ষড়যন্ত্র করে।

অনেকেই আছে যারা উন্নয়ন চায় না, তারাই এই কাজ করছে। এরকম মানুষ রোজ ষড়যন্ত্র কষছে। এদের ষড়যন্ত্রের মুখোশ খুলে দিন। উপ নির্বাচনের প্রস্তুতির সমীক্ষা মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ দলীয় বৈঠকে দলের নেতাদের জয়ের মন্ত্র দেন। উনি বলেন, করোনার কারণে এবারের নির্বাচন একদম আলাদা হবে। বড় সভা হবে না। আর এই কারণে বুথে বুথে চার পাঁচজনের গ্রুপ বানিয়ে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করুন। সরকারের ভালো কাজ গুলো তাঁদের জানান।

আরেকদিকে, রবিবার হাথরসের বসন্ত বাগে প্রাক্তন বিধায়ক রাজবীর পেহলবানের বাড়িতে পঞ্চায়েত শুরু হয়। পঞ্চায়েতে অনেকেই উপস্থিত হয়। প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে হওয়া এই পঞ্চায়েতে হাথরস মামলা নিয়েক অনেক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়। পঞ্চায়েতে উচ্চ বর্ণের মানুষেরা একত্রিত হন। পঞ্চায়েতে উচ্চ বর্ণের মানুষেরা পুলিশ দ্বারা গ্রেফতার করা ব্যাক্তিদের নির্দোষ বলেন। আরেকদিকে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সিবিআই তদন্তের সিদ্ধান্তকে জন্য উচ্চ বর্ণের মানুষেরা স্বাগত জানায়।

এই ঘটনার পর নির্যাতিতার পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করতে যাওয়া সমাজবাদী পার্টির রাজ্য সহ সভাপতি অভিযুক্তদের মাথা কেটে আনার জন্য এক কোটি টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা নিয়ে উচ্চ বর্ণের মানুষেরা বিরোধিতা করেন। উল্লেখ্য, লাগাতার অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে নেওয়া পদক্ষেপে উচ্চ বর্ণের মানুষেরা ধরনায় বসেছে। আরেকদিকে, গ্রামে পুলিশের কড়া পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এবার হাথরস কাণ্ডের তদন্ত সিবিআই দিয়ে করানোর প্রস্তুতি চলছে। যোগী সরকার কেন্দ্র সরকারের কাছে এই কাণ্ডে সিবিআই তদন্ত করার সুপারিশ করেছে। কিন্তু নির্যাতিতার পরিবার সিবিআই তদন্ত চাইছে না। এমনকি তাঁরা নারকো টেস্টও করাতে চাইছে না।

নির্যাতিতার পরিবার জানান, তাঁরা সিবিআই এর তদন্তের দাবি জানায় নি। ওনারা এই মামলা সুপ্রিম কোর্টে তত্ত্বাবধানে করানোর দাবি করেছেন। যদিও পরিবার যোগী সরকারের উপর আস্থা রেখেছে। জানিয়ে দিই, আজ আবারও SIT এর টিম হাথরসে পৌঁছায়। টিম নির্যাতিতার পরিবারের বয়ান দায়ের করে।

Back to top button