টাইমলাইনভারত

মে মাসে ১২ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক, সমস্যা এড়াতে জেনেরাখুন সমস্ত দিনক্ষণ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ দেশজুড়ে মারণ ভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে চলেছে। এই পরিস্থিতিতে মে মাসে করোনা শীর্ষে পৌঁছে যেতে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। সেই মত মে মাসে আরও কড়া হতে চলেছে দেশের ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। তার উপরে মে মাসে ছুটির তালিকাও লম্বা। পরবর্তী মাসে ব্যাংক বন্ধ থাকবে মোট ১২ দিন। যার মধ্যে পাঁচটি রবিবার এবং দুটি মাসের দ্বিতীয় এবং চতুর্থ শনিবার। এছাড়াও রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (RBI) ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, রাজ্যভিত্তিক ছুটির কারণে সংশ্লিষ্ট রাজ্যে ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে।

তাই আরবিআই ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, ১, ৭, ১৩, ১৪ এবং ২৬ মে ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকছে। তাই এই দিনগুলি মাথায় রেখে ব্যাঙ্ক আসার পরিকল্পনা করুন। তবে ব্যাঙ্কের শাখাগুলি বন্ধ থাকলেও, মোবাইল ও ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা অব্যাহত থাকবে। অনলাইন লেনদেনের ক্ষেত্রেও কোনও সমস্যা হবে না।

তদুপরি ব্যাংকে নুন্যতম মুশকিল এড়াতে জেনে নিন আপনার এলাকার ব্যাংক কোন দিন গুলিতে খোলা থাকবে এবং কোন দিন বন্ধ থাকবে। নীচে মে মাসের ছুটির গোটা তালিকা তুলে ধরা হল—-

১) ১ মে – মহারাষ্ট্র দিবস, মে দিবস, শ্রম দিবস – এই দিনটিতে একাধিক রাজ্যে বন্ধ থাকবে ব্যাংক (Bank Closed) । সেই তালিকায় রয়েছে মুম্বই, কলকাতা, কোচি, নাগপুর, পানাজি, পটনা, চেন্নাই, হায়দরাবাদ, তিরুঅনন্তপুরম, গুয়াহাটি,বেলাপুর, ইম্ফল ও বেঙ্গালুরু।

২) ২ মে – রবিবার

৩) ৭ মে – জান্নাতুল ভিদা- এই দিনটিতে ব্যাংক বন্ধ (Bank Closed) থাকবে কেবল জম্মু ও শ্রীনগরে।

৪) ৮ মে – মাসের দ্বিতীয় শনিবার

৫) ৯ মে – রবিবার

৬) ১৩ মে- ঈদ উল ফিতর- এই দিনটিতে ব্যাংক বোন বন্ধ থাকবে (Bank Closed) ।

৭) ১৪ মে – পরশুরাম জয়ন্তী, রমজান-ঈদ এবং অক্ষয় তৃতীয়া – এই দিনটিতে বন্ধ থাকবে ব্যাংক।

৮) ১৬ মে – রবিবার

৯) ২২ মে – মাসের চতুর্থ শনিবার

১০) ২৩ মে – রবিবার

১১) ২৬ মে – বুদ্ধ পূর্ণিমা এই দিনটিতে ব্যাংক বন্ধ (Bank Closed) থাকবে দেশের একাধিক শহরে। যেমন – বেলাপুর, আগড়তলা, ভোপাল, চন্ডীগড়, দেরাদুন, কানপুর, জম্মু, কলকাতা, নয়াদিল্লি, লখনউ, মুম্বই, নাগপুর, রায়পুর, রাঁচি, শ্রীনগরে ও সিমলা।

১২) ৩০ মে – রবিবার।

উল্লেখ্য, দেশের ক্রমবর্ধমান করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ব্যাংকগুলির সংগঠন IBA কেবল সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ২ টো পর্যন্ত ব্যাংক খুলে রাখার পরামর্শ দিয়েছে। এমনকি করোনার এহেন উদ্বেগজনক পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত সেই নির্দেশিকা জারি রাখারও কথা বলা হয়েছে। অর্থাৎ ব্যাংক (Bank) গুলি খোলা থাকবে কেবলমাত্র চার ঘণ্টা।

Related Articles

Back to top button