টাইমলাইনভারত

মন্ত্রীর সামনেই এক মহিলা কষিয়ে চড় মারলেন শাসক দলের নেতাকে! অপমানে বিষ খেলেন অভিযুক্ত নেতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ছত্তিসগড়ের সরগুজা সার্কিট হাউসে ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসের দিনে কংগ্রেস নেতা অনিমেষ সিনহাকে এক মহিলা প্রথমে চড় মারেন, এরপর জুতো দিয়ে মারেন। সেই ঘটনার অপমান সহ্য করতে না পেরে কংগ্রেসের নেতা অনিমেষ সিনহা বিষ খেয়ে নেন। অনিমেষ বিষ খাওয়ার আগে নিজের ফেসবুকে একটি পোস্টও করেন। ফেসবুক পোস্টে অনিমেষ সিনহা লেখেন, ‘আমি ভোলেনাথের কাছে যাচ্ছি … আমার যাওয়ার পর সত্যের জয় হবে। আলবিদা।” বিষ খাওয়ার পর কংগ্রেস নেতাকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।

সরগুজা সার্কিট হাউসে ২৬ জানুয়ারি সন্ধ্যে বেলায় রাজ্যের মন্ত্রী শিব ডহরিয়া কংগ্রেসের নেতাদের সাথে বৈঠক করছিলেন। কংগ্রেসের নেতা অনিমেষ সিনহা রাজ্যের খাদ্য মন্ত্রী অমরজিৎ ভগতের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। তিনি মন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমি ১৫ বছর ধরে কংগ্রেসের ঝাণ্ডা ধরছি আর রাজ্যে যখন আমাদেরই সরকার চলছে, তখন আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগে মামলা করা হচ্ছে।

২৬ জানুয়ারি সন্ধ্যে বেলায় নিজের মায়ের সাথে সার্কিট হাউসে পৌঁছান যুবতী প্রথমে কংগ্রেস নেতাকে চড় মারেন, এরপর জুতো খুলেও মারেন। মহিলার রনং দেহী মূর্তি দেখে যুব কংগ্রেস নেতা সেখান থেকে পালিয়ে যান। মহিলা অভিযোগ করে বলেন যে, কংগ্রেসের নেতা তাঁর মেয়েকে বন্দি বানিয়ে রেখেছিল। কংগ্রেস নেতা অনিমেষ সিনহা এই ঘটনায় অপমানিত হয়ে বিষ খেয়ে নেন।

অনিমেষ সিনহাকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে, ডাক্তাররা জানিয়েছে ওনার অবস্থা এখন স্থিতিশীল। আপাতত নেতাকে ICU তে পর্যবেক্ষণের মধ্যে রাখা হয়েছে। বিষ খাওয়ার পর হাসপাতালে কংগ্রেস নেতা বলেন, ওনার চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলে ওনার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শেষ করার ষড়যন্ত্র চলছে। ষড়যন্ত্র করেই এসব ঘটনা ঘটানো হয়েছে ওনার সঙ্গে।

আরেকদিকে, মহিলা কংগ্রেস নেতার অভিযোগ করেছে রাজ্যের মন্ত্রী শিব ডহরিয়ার কাছে। মহিলা অভিযোগ করে বলেছেন যে, কংগ্রেসের এই নেতা আমাদের পাড়ায় ঢুকে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালি আর আমাদের মারধোর করেছে। অনিমেষের বিরুদ্ধে আগে থেকেই অনেক মামলা দায়ের আছে। মহিলার অভিযোগের পর মন্ত্রী পুলিশের কাছে মামলার নিরপেক্ষ তদন্ত করার নির্দেশ দেন।

Back to top button