টাইমলাইনভারত

সাংবাদিকের মেরে মাথা ফাটাল শাসক দলের নেতারা! দুর্নীতি প্রকাশ্যে আনায় প্রাণে মারারও হুমকি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ছত্তিসগড়ের (Chhattisgarh) কাঙ্কের জেলায় এক বরিষ্ঠ সাংবাদিক অভিযোগ করে বলেছেন যে, কংগ্রেসের স্থানীয় নেতারা ওনাকে মারধোর করেছে। এরপর পুলিশ ওনার অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করে নেয়। এই বিষয়ে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী তাম্রধ্বজ সাহু বলেন, রিপোর্ট লেখা হচ্ছে এরপর কড়া অ্যাকশন নেওয়া হবে। কাঙ্কের জেলার পুলিশ আধিকারিকের থেকে জানা যায় যে, সাংবাদিক কমল শুক্লা (৫৩) গফফার মেমন, জিতেন্দ্র সিং ঠাকুর, শাদাব খান, গণেশ তিওয়ারি আর অন্যান্য কয়েকজনের বিরুদ্ধে মারধোর করা এবং প্রাণে মারা হুমকি দেওয়ার অভিযোগ করেছেন।

পুলিশ আধিকারিক জানান, শুক্লা পুলিশে অভিযোগ দায়ের জানিয়েছে যে, আমি খবর পেয়েছিলাম কাঙ্কের জেলার আরেক সাংবাদিক সতিশ যাদবকে পুরসভার প্রাক্তন সভাপতি জিতেন্দ্র সিং ঠাকর আর অন্য কয়েকজন মিলে মারধোর করে থানায় নিয়ে গিয়েছে।

খবর পাওয়ার পর শুক্লা আর অন্যান্য সাংবাদিকরা যখন থানায় পৌঁছায়, তখন কংগ্রেস বিধায়ক শিশুপাল শোরির প্রতিনিধি গফফার মেমন, জিতেন্দ্র সিং ঠাকুর, কাউন্সিলর মকবুল খান, শাদাব খান, গণেশ তিওয়ারি আর অন্যান্যরা সাংবাদিকদের প্রাণে মারার হুমকি দেয়।

পুলিশ আধিকারিক জানান, সাংবাদিক শুক্লা অভিযোগ করে বলেছেন যে, অভিযুক্তরা শুক্লাকে দেখে থানার ভিতরেই মারধরের চেষ্টা করে। আর অভিযুক্ত গফফার খান পিস্তল বের করে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। গফফার খান এও বলে যে, সাংবাদিক শুক্লা তাঁর বালির ব্যবসার ক্ষতি করেছে।

নিগৃহীত সাংবাদিক পুলিশে করা অভিযোগে জানান, তিনি জেলায় দুর্নীতি, বালি মাফিয়া আর আদিবাসিদের উপর অত্যাচার নিয়ে খবর করায় তাঁকে লাগাতার প্রাণে মারার হুমকি দএয়া হচ্ছে। শুক্লা এরজন্য পুলিশের কাছে সুরক্ষাও দাবি করেছেন। আরেকদিকে পুলিশ বয়ান জারি করে বলেছে, এগুলো সাংবাদিকদের অন্তর্দ্বন্দ্ব।

Back to top button