টাইমলাইনভারত

ব্ল্যাকমেল করে দেড় মাস যাবৎ লাগাতার ধর্ষণ! উপায় না পেয়ে ধর্ষককে খুন মাধ্যমিক ছাত্রীর

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে প্রায় প্রতিদিনই ধর্ষণের মত ঘৃণ্য ঘটনার প্রসঙ্গ উঠে আসে খবরের শিরোনামে। যত দিন যাচ্ছে ততই কার্যত বেড়ে চলেছে এই ঘটনা। ঠিক সেইরকমই এক হাড়হিম করা ঘটনা এবার সামনে এল। জানা গিয়েছে, ১৪ বছরের এক ছাত্রীকে ব্ল্যাকমেল করে লাগাতার ধর্ষণ করছিলেন এক ব্যক্তি! আর তারপরেই ওই ব্যক্তিকে খুন করে নাবালিকা। ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের আলওয়ারে।

জানা গিয়েছে, গত দেড় মাসে ওই ব্যক্তি একাধিকবার ধর্ষণ করে ওই নাবালিকাকে। এমনকি, ব্ল্যাকমেল করার পাশাপাশি তাঁর বন্ধুদের সাথেও ওই নাবালিকাকে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের জন্য চাপ দিচ্ছিল সে। মৃত ব্যক্তির নাম হল বিক্রম যাদব, তাঁর বয়স ৪৫ বছর। সে ওই গ্রামের প্রাক্তন গ্রাম প্রধানের ছেলে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

এই প্রসঙ্গে দৈনিক ভাস্করের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, ওই নাবালিকা দশম শ্রেণির ছাত্রী। সে জল আনতে বিক্রমের বাড়িতে প্রায়ই যেত। মাস দেড়েক আগে ওই নাবালিকা বিক্রমের কাছ থেকে তাঁর ফোনটি চেয়ে এক বন্ধুকে (পড়ুন প্রেমিক) ফোন করে। এদিকে, বিক্রম সুযোগ বুঝে ওই কলটি ফোনে রেকর্ড করে নিয়ে নাবালিকাকে ব্ল্যাকমেল করতে শুরু করেন। এমনকি, তাকে একাধিকবার ধর্ষণও করেন।

এই প্রসঙ্গে আলওয়ারের এএসপি অতুল সাহু জানিয়েছেন, “বিক্রমের আগে গ্রামের আরও দুই যুবক ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করেছিল প্রায় ছ’মাস আগে। তারাও ওই নাবালিকার সম্পর্কের কথা জানতে পেরে যায়। গ্রামেরই এক যুবকের সাথে বিগত এক বছর ধরে তার সম্পর্ক ছিল। এদিকে, একটা সময়ে বিক্রম নাবালিকাকে তাঁর বন্ধুদের সঙ্গেও শারীরিক সম্পর্কের জন্য চাপ দিচ্ছিলেন। এর জেরে মেয়েটি তাঁকে হত্যা করে।”

পাশাপাশি, তিনি আরও জানিয়েছেন, গত ১৭ মে সন্ধ্যায় বিক্রম মদ্যপ ছিলেন। ওই সময়ে জল ভর্তির অজুহাতে তাঁর বাড়িতে যায় নাবালিকা। পাশাপাশি, বিক্রমকে বাড়ির পাশের একটি ক্ষেতে আসার ইঙ্গিত দেয় সে। রাত সাড়ে ৯ টার দিকে বিক্রম মদ্যপ অবস্থায় সেখানে যায়। সেই সুযোগেই ওই নাবালিকা শ্বাসরোধ করে হত্যা করে অভিযুক্তকে। এছাড়াও, তাঁর দেহ ফেলে দেওয়া হয় রাস্তার পাশে।

এমতাবস্থায়, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্রমের মোবাইল ফোনের পাশাপাশি কিছু নমুনা এবং রক্তের চিহ্ন খুঁজে পেয়েছে। এছাড়াও, বিক্রমের মোবাইলে ওই নাবালিকার কল রেকর্ডিংও পেয়েছে পুলিশ। এরপর পুলিশ তাকে হেফাজতে নিয়ে আলওয়ার নারী নিকেতনে পাঠিয়ে দেয়। সেখানেই জিজ্ঞাসাবাদ করলে পুরো ঘটনা খুলে বলে সে। পাশাপাশি, গত ৬ জুন বিক্রম সহ মোট তিন জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করে ওই নাবালিকা।

Related Articles