fbpx
আন্তর্জাতিকটাইমলাইনভারত

কলকাতা এয়ারপোর্টে ছড়িয়ে পড়ল করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক, হাসপাতালে পাঠানো হল ৩ যাত্রীকে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ফের ভারতে করোনা ভাইরাসে দুইজন আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়েছিল। ব্যাংককের NSCBI এয়ারপোর্ট থেকে ফিরে আসা দুই ব্যক্তিকে কলকাতা এয়ার্পোর্টে থার্মাল স্কীনিং পরীক্ষার রিপোর্ট সামনে আসতেই এই খবর ছড়িয়ে পড়ে। দাবি করা হয়েছিল দুজন ব্যক্তির দেহে করোনা ভাইরাসের পজেটিভ সংকেত মিলেছে। এই ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচার জন্য এর আগেই বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্দো-চায়না বিমান পরিষেবা। এর ফলে ভারতবাসীর মনে ধীরে ধীরে করোনা আতঙ্ক বাসা বাঁধছে।


NSCBI এয়ারপোর্টের ডিরেক্টর কৌশিক ভট্টাচার্জ বলেন, গত মঙ্গলবার হিমাদ্রি বর্মন নামে এক ব্যক্তি এই রোগে আক্রান্ত হন। এবং বুধবার আবার নগেন্দ্রনাথ সিং নামে এক ব্যক্তির শরীরে ধরা পড়ে এই রোগ। এনাদের সকলকেই বেলিয়াঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি আর জানান, এর আগে ভারতে প্রথম এই রোগে আক্রান্ত হন অনিতা ওঁরাও নামে একজন মহিলা। অবশ্য পরে বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে করোনা ভাইরাস নিয়ে যে খবর ছড়িয়েছে, তা ভুল।
ইতিমধ্যেই ভারত-চীন বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। WHO-র গাইড লাইন অনুযায়ী এই ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সেই কারণে কলকাতা-গাংজু গামী বিমান চলাচল ৬ ই ফেব্রুয়ারী থেকে ২৫ শে ফেব্রুয়ারী অবধি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবং গাংজু-কলকাতা রুটের বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে ৭ ই ফেব্রুয়ারী থেকে ২৬ শে ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত।
পরবর্তীতে ১০ ই ফেব্রুয়ারী থেকে ২৯ শে ফেব্রুয়ারী অবধি চীনের ইস্টার্ন বিমান সংস্থা কলকাতা এবং কুম্মিং এর মধ্যেকার বিমান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। এর মধ্যে আর কোন বিমান ভারত থেকে চীনে যাবে না বলে জানা গিয়েছে। এই মারণঘাতী করোনা ভাইরাস যাতে আর বেশি ছড়িয়ে না পড়তে পারে সেদিকে সরকারী তরফ থেকে নজর রাখা হচ্ছে।

Back to top button
Close
Close