টাইমলাইনভারত

গুজরাটের আহমেদাবাদে তৈরি হল ভারতের সবথেকে বড় করোনা কেয়ার সেন্টার, একসাথে থাকবে ২ হাজার রোগী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দেশে (India) করোনা ভাইরাসের ক্রমবৃদ্ধিমান মামলা দেখে কেন্দ্র সরকার ৩রা মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্বাস্থ মন্ত্রালয় (Health Ministry) মঙ্গলবার জানিয়েছে যে, দেশে এখনো পর্যন্ত ৬০২ টি করোনা সমর্পিত হাসপাতাল তৈরি হয়েছে। আর গুজরাটের আহমেদাবাদে (Ahmedabad) দেশের সবথেকে বড় কোভিড-১৯ এর তত্ত্বাবধান কেন্দ্র (Corona Care Center) বানানো হয়েছে। আর সেখানে ২ হাজার রোগীদের রাখা যেতে পারে।

গুজরাট থেকে করোনার ভাইরাসের ৬১৭ টি মামলা সামনে এসেছে। শুধুমাত্র আহমেদাবাদেই ৩৪৬ জনের মধ্যে এই মারক ভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া গেছে। আর এই কারণে আহমেদাবাদের স্থানীয় পুরনিগম দেশের সবথেকে বড় কোভিড-১৯ এর তত্ত্বাবধান কেন্দ্র বানিয়েছে সেখানে ২ হাজার রোগীকে একসাথে রাখা যেতে পারে। যদিও সেখানে শুধু সেই রোগীদের রাখা হবে, যাঁদের মধ্যে অন্য কোন রোগ অথবা জটিলতা নেই।

সাঙ্কেতিক ছবি

আধিকারিকরা মঙ্গলবার জানান, গুজরাটের বিশ্ববিদ্যালয় পরিসরের কাছে একটি ছাত্রাবাসে তৈরি করা এই কেন্দ্রের সাহায্যে সরকারি হাসপাতালের চাপ কমানো সম্ভব হবে। এই কেন্দ্রে রোগীদের জন্য লাইব্রেরী, যোগা আর ইন্ডোর খেলার মতো সুবিধা আছে।

আহমেদাবাদের সিটি কমিশনার বিজয় নেহরা বলেন, এখানে আমরা ২ হাজার রোগীকে রাখতে পারব, এটা দেশের প্রথম আর সবথেকে বড় করোনা দেখভাল কেন্দ্র। উনি বলেন, এই কেন্দ্রে আসা প্রতিটি রোগীর জন্য একটি বিছানা আর প্রয়োজনীয় জিনিষ যেমন টুথব্রাশ, সাবান আর বালটি থাকবে।

নেহরা বলেন, মেডিকেল টিম দিনে দুবার রোগীদের পরীক্ষা করবে, আর ওই টিম সেখানেই থাকবে এর ফলে তাঁদের থেকে এই সংক্রমণ আর বাইরে ছড়িয়ে পরবে না। উনি বলেন, মেডিকেল টিমের সদস্যদেরও ১৪ দিন পর সংক্রমণের জন্য পরীক্ষা করা হবে।

Back to top button