টাইমলাইনবিজ্ঞানভারত

মুহূর্তেই মিলবে করোনা পরীক্ষার ফল, ইজরায়েল থেকে বিশেষ মেশিন ভারতে আনছে আম্বানির রিলায়েন্স

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে এই মুহূর্তে নাজেহাল গোটা দেশ। একদিকে যখন রীতিমতো আতঙ্ক বাড়াচ্ছে সংক্রমিতের সংখ্যা। তখনই অন্যদিকে চিকিৎসা নিয়েও শুরু হয়েছে নানান জটিলতা। ভারতের মতো এতো জনবহুল দেশে করোনার মত সংক্রামক রোগকে সামাল দেওয়া এমনিতেই কঠিন। কিন্তু বিশ্বের অনেক দেশেই কোভিড নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়েছে, যার মধ্যে অন্যতম হলো ইজরায়েল। এবার সেই দেশে থেকেই বিশেষ প্রশিক্ষিত টিম এবং বিশেষ মেশিন ভারতে নিয়ে আসছে আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ। এই মেশিনে মুহূর্তের মধ্যেই ধরা পড়বে করোনার সংক্রমণ।

ইজরায়েলের একটি বিশেষ স্টার্টআপ সংস্থা থেকে এই প্রশিক্ষিত টিমকে ভারতে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রিলায়েন্স। ভারতে এসে বিশেষ প্রশিক্ষণ দিতে পারবেন তারা। এই পরিস্থিতিতে এই বিশেষ দলটিকে ভারতে আনতে খরচ প্রায় ১ কোটি ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার। প্রশিক্ষণের পাশাপাশি দ্রুত করোনা সংক্রমণ চিহ্নিতকরণের জন্য ‘কোভিড আইডেন্টিফিকেশন সলিউশন’ মেশিনও বসিয়ে দিয়ে যাবেন তাঁরা। ভারতে আসার জন্য ইতিমধ্যেই অনুমোদন পেয়েছে “ব্রেথ অফ হেলথ” নামক এই ইজরায়েলি সংস্থা।

এমনিতে ইজরায়েল থেকে মোট সাতটি দেশে যাওয়ার জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে, যার মধ্যে অন্যতম হলো ভারতের নাম। কিন্তু সাম্প্রতিক অবস্থার কথা বিচার করে রিলায়েন্সের একটি বিশেষ দলকে প্রশিক্ষণ দেবে ওই ইজরায়েলি দলটি। খবর অনুযায়ী, তারা এমন মেশিন তৈরি করেছেন যা একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়েই করোনা আক্রান্তকে চিহ্নিত করতে পারবে। শুধু তাই নয় কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই মিলবে রিপোর্ট।

ওই সংস্থার তৈরি ‘কোভিড ১৯ ব্রেথ টেস্টিং সিস্টেম’ পেতে গত জানুয়ারিতে দেড় কোটি ডলারের চুক্তি করেছিল আম্বানির রিলায়েন্স। চুক্তি অনুযায়ী সংস্থার কাছ থেকে কয়েকশো মেশিন কিনবে তারা। মাসে ১ কোটি টাকা খরচে কয়েক লক্ষ টেস্ট করতে পারবে এই মেশিন গুলি।ইজরায়েলি ওই সংস্থা জানিয়েছে, মেশিনের তথ্য ৯৫% নির্ভুল। ইতিমধ্যেই ইজরায়েলের দুটি হাসপাতলে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানো হয়েছে। দেখা গেছে ৯৮ শতাংশ ক্ষেত্রেই মেশিনের দেওয়া তথ্য একেবারে নির্ভুল। সংস্থার মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই ভারতে এসে পৌঁছেছে ওই মেশিন। এটি ভারতকে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়েও বিশেষ সাহায্য করবে বলেই দাবি করেন তিনি। ভারতে করোনার সংক্রমণ রোধে এই মেশিন বৈপ্লবিক ভূমিকা গ্রহণ করবে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

এছাড়া দেশজুড়ে অক্সিজেনের অভাব মেটাতেও তৎপরতার সঙ্গে কাজ করে চলেছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ। বর্তমানে দেশের মধ্যে মেডিকেল অক্সিজেন উৎপাদনকারী সংস্থা হিসেবে শীর্ষস্থানেও রয়েছে তারা। বর্তমানে প্রত্যেকদিন ১০০০ মেট্রিকটন মেডিক্যাল গ্রেড লিকুইড অক্সিজেন তৈরি করছে রিলায়েন্স গ্রুপ। ভারতে মোট যে পরিমাণ অক্সিজেন তৈরি হচ্ছে প্রতিদিন তার ১১ শতাংশই তৈরি করছে তারা। সাধারণত রিলায়েন্স মেডিকেল অক্সিজেন তৈরি করে না। কিন্তু এই মুহূর্তে দেশের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে সংস্থা।

Related Articles

Back to top button