টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মাত্র ৫ মিনিটের জন্য এলেও অক্সিজেনের মত কাজ করবে, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ব্রিগেডে আনতে উৎসুক বাম শিবির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বাংলায় নির্বাচনের ঢাকে কাঠি পড়ে গিয়েছে। শুক্রবার বাংলাসহ আরও ৪ রাজ্যের নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারিত হয়েছে। এরই মধ্যে রবিবার বামেদের ব্রিগেড সমাবেশে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে (Buddhadeb Bhattacharya) অন্তত ৫ মিনিটের জন্য হলেও চাইছে লাল শিবির। বাংলা দখলের নিরিখে বুদ্ধদেববাবুর উপস্থিতই তাদের কাছে খানিকটা অক্সিজেনের মত কাজ করবে বলে দাবি বাম শিবিরের।

২০১৫ সালের ২৭ শে ডিসেম্বর শিল্পায়নের পক্ষে সওয়াল করে শেষবাররে মত বক্তৃতা দিয়েছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তবে তারপর ২০১৯ সালের ৩ রা ফেব্রুয়ারী ব্রিগেডের মাঠে উপস্থিত থাকলেও, একজন শ্রোতা হিসাবে এসেছিলেন। সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্যও।

সময় এখন অনেকটাই বদলেছে। আগের থেকেও অনেকটাই শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছেন বাম শিবিরের সেই দাপুটে নেতা। বর্তমানে আবার নতুন করে তাঁর দৃষ্টিশক্তিও ক্ষীণ হয়ে গিয়েছে। চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন তিনি। এতকিছুর মধ্যে থেকেও কি তাঁর পক্ষে ব্রিগেড যাওয়া সম্ভব হবে?

বেশিক্ষণের জন্য না হলেও অন্তত পক্ষে ৫ মিনিটের জন্য বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের উপস্থিতই ভীষণভাবে চাইছে বাম শিবির। আজও তাঁর আগুন ঝরানো বক্তৃতা শোনার জন্য উৎসুক থাকে বাম শিবির। রবিবারের ব্রিগেড সমাবেশে বাংলার মানুষকে উজ্জীবিত করতে বুদ্ধদেববাবুর উপস্থিতি ঠিক যেন অক্সিজেনের মত বাম শিবিরের কাছে। তাই সিপিআইএমের তরফ থেকে তাঁর মেডিকেল টিমকেও অনুরোধ করা হয়েছে, অন্তত ৫ মিনিটের জন্য যেন তাঁকে ব্রিগেডে আসতে দেওয়া হয়।

বাম শিবিরের প্রতিটি সদস্য এখন তাই বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের মেডিকেল টিমের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে রয়েছে। তবে একান্তই যদি সশরীরে উপস্থিত হতে না পারেন, তাহলে তাঁর জন্য ভার্চুয়ালি ব্যবস্থা করার বিষয়েও চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে।

Back to top button